• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • সব খুইয়ে এখন নিঃস্ব আদিত্য নারায়ণ!‌ বিয়ের মুখে হাতে মাত্র ১৮ হাজার টাকা

সব খুইয়ে এখন নিঃস্ব আদিত্য নারায়ণ!‌ বিয়ের মুখে হাতে মাত্র ১৮ হাজার টাকা

কয়েকদিন আগেই আদিত্য ঘোষণা করেছেন তিনি বিয়ে করতে চলেছেন তাঁর দীর্ঘদিনের প্রেমিকা শ্বেতা আগরওয়ালকে।

কয়েকদিন আগেই আদিত্য ঘোষণা করেছেন তিনি বিয়ে করতে চলেছেন তাঁর দীর্ঘদিনের প্রেমিকা শ্বেতা আগরওয়ালকে।

কয়েকদিন আগেই আদিত্য ঘোষণা করেছেন তিনি বিয়ে করতে চলেছেন তাঁর দীর্ঘদিনের প্রেমিকা শ্বেতা আগরওয়ালকে।

  • Share this:

    #‌মুম্বই:‌ করোনা ভাইরাস অতিমারির ফলে সারা দেশেই একটা বড় অংশের মানুষ কাজ হারিয়েছেন। অনেকের আয় কমে গিয়েছে অনেকটা। সেলেব্রিটিরাও অনেকে বলেছেন তাঁদের হাতে বিন্দুমাত্র টাকা পয়সা নেই। কারণ লকডাউনে তাঁদের কাজ ছিল না মোটে। সঞ্চিত টাকায় যে ক’‌দিন চলেছে, সে ক’‌দিন কোনওমতে কাটিয়েছেন। এবার কাজ শুরু না হলে তাঁদের আর জীবনযাপনের অর্থটুকু থাকবে না। তেমনই দশা হয়েছে আদিত্য নারায়ণের। তাঁর ব্যাঙ্ক ব্যালেন্স নাকি এসে দাঁড়িয়েছে মাত্র ১৮ হাজার টাকায়। আর এখন বাইক বিক্রি করে সংসার চালানো ছাড়া তার আর কোনও উপায় নেই।

    কয়েকদিন আগেই আদিত্য ঘোষণা করেছেন তিনি বিয়ে করতে চলেছেন তাঁর দীর্ঘদিনের প্রেমিকা শ্বেতা আগরওয়ালকে। আর ঠিক বিয়ের মুখেই তাঁকে পড়তে হয়েছে এই অর্থ কষ্টে। ইন্ডিয়ান আইডল সহ ছোটপর্দার একাধিক রিয়েলিটি শোয়ে অ্যাঙ্ক হিসাবে আদিত্যর দেখা মিলেছে। আদিত্য খেতরো কে খিলাড়ি নামে রিয়েলিটি শো–তেও অংশ নিয়েছিলেন। তিনিই সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘‌সরকার যদি আর লকডাউনের সময় বাড়ায় তাহলে লোকে না খেতে পেয়েছে মরবে। আমার সমস্ত সঞ্চিত অর্থ এই লকডাউনে শেষ হয়ে গিয়েছে। মিউচুয়াল ফান্ডে আমি যা টাকা রেখেছিলাম, সেসব টাকাও আমাকে তুলে নিতে হয়েছে। কারণ, এক বছর কোনও কাজ নেই। আর কোটি কোটি টাকার মালিক আমি নই যে কাজ থাকলেও আমি আনন্দে একটা বছর কাটিয়ে দেবো।

    তিনি আরও বলেন, ‘‌তাই আমার কাছে আর কোনও উপায় ছিল না। এখন আমার কাছে মাত্র ১৮ হাজার টাকা আছে। অক্টোবরে যদি আমি কাজ না শুরু করতে পারি তাহলে আর কোনও উপায় থাকবে না। আমাকে আমার প্রিয় কিছু জিনিস বিক্রি করতে হতে পারে। হতে পারে পারে সেটা আমার বাইক। আমি অবশ্যই সেই সব লোকেদের মধ্যে নিজেকে রাখব, যাঁরা চাইছেন না আর লকডাউনের সময় বাড়ুক।’‌

    Published by:Uddalak Bhattacharya
    First published: