• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • 'ব্রেথ ইনটু দ্য শ্যাডোস'! অভিষেকের শ্যাডোতেই এবার মুগ্ধ হবে দর্শক ! এ এক বাবার লড়াই !

'ব্রেথ ইনটু দ্য শ্যাডোস'! অভিষেকের শ্যাডোতেই এবার মুগ্ধ হবে দর্শক ! এ এক বাবার লড়াই !

photo source collected

photo source collected

এই সিরিজ দেখা শুরু করলে সিট ছেড়ে উঠতে পারবেন না আপনি। সারাক্ষণ একট উৎকণ্ঠা তাড়া করে বেড়াবে।

  • Share this:

    #মুম্বই: অভিষেক বচ্চন। বলিউডে কাজ শুরু ২০০০ সালে 'রিফিউজি' ছবি দিয়ে। এই ছবিতে করিনা কাপুর খান ছিলেন তাঁর বিপরীতে। প্রথম ছবিতেই নজরে এসেছিলেন বচ্চন পুত্র জুনয়র বচ্চন। এর পর অনেক ছবি তিনি করেছেন। কিন্তু সারা জীবন মাথার ওপর বয়ে নিয়ে বেড়াতে হয়েছে বাবার ছায়া। মানুষ সব সময় অভিষেককে তুলনা করেছেন অমিতাভের সঙ্গে। এর ফলে অভিষেকের ভাল অভিনয় কখনই সামনে আসেনি। অভিষেক শুধু রোমান্টিক ছবি নয় কমেডি ছবিতেও খুব ভাল অভিনয় করেন। তবে সেখানেও সেই এক কথা চলে আসবে ঠিক অমিতাভের মতো নয়। আরে দু'টো মানুষ যখন আলাদা তাঁদের অভিনয় এক কি করে হবে ! যাই হোক মানুষের এই বোঝা না বোঝার মাঝেই হারাতে হয়েছিল অভিষেককে।

    তবে তিনি আবার ফিরেছেন। নিজের সঠিক রূপে। অ্যামাজন অরিজিনালে শুরু হয়েছে তাঁর নতুন সিরিজ 'ব্রেথ ইনটু দ্য শ্যাডোস'। মৈনাক শর্মা পরিচালিত এই সিরিজটি রিলিজ হতেই মন জয় করতে শুরু করেছে মানুষের। সিরিজের গল্পটা কিছুটা এরকম, অভিষেকের বছর পাঁচেকের বাচ্চাকে কেউ কিডন্যাপ করে নেয়। তিন মাস কেটে গেলেও কোনও খোঁজ পাওয়া যায় না মেয়ের। পাগল হয়ে যায় বাবা অভিষেক। মেয়েকে খুঁজে বার করতেই হবে। এমন সময় ভিডিও কল করে কিডন্যাপার। কিছু মানুষকে খুন করতে বলে অভিষেককে। তবেই মেয়ে ফেরত দেওয়া হবে। মাইন্ড গ্যাম খেলার চেষ্টা চালায় । অভিষেক এখানে নিজে একজন সাইক্রিয়াটিস। সে খুঁজতে চেষ্টা করে এই মাইন্ডগেমের গোড়া। এই নিয়েই এগোবে গল্প।

    তবে এই সিরিজ দেখা শুরু করলে সিট ছেড়ে উঠতে পারবেন না আপনি। সারাক্ষণ একট উৎকণ্ঠা তাড়া করে বেড়াবে। এই সিরিজের ট্রেলর দেখেই চমকে উঠেছিল সকলে। এবার ফের একবার নিজের অভিনয়ে মুগ্ধ করছেন অভিষেক। তিনি ভাল অভিনেতা তা প্রমান করলেন আরও একবার। সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে শুরু হয়েছে অভিনেতার প্রশংসা। প্রশংসা করেছেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চনও। এ এক অন্য অভিষেক। না অমিতাভ এখানে কোথাও নেই। সবটা জুড়ে আপনাকে মোহিত করে রাখবে এক সন্তানহারা বাবা। অভিষেক বচ্চন।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: