এখনও দেখতে যাননি খুদে ভাগ্নেকে, করিনার সঙ্গে কি ভাই আদরের মনোমালিন্য চলছে ?

এখনও দেখতে যাননি খুদে ভাগ্নেকে, করিনার সঙ্গে কি ভাই আদরের মনোমালিন্য চলছে ?

এই বছরই নবাব বাহাদুর আর বেগম সাহেবার জীবনে এসেছে দ্বিতীয় সন্তান। কিন্তু সেই সন্তানের মুখ এখনও দেখা হয়নি অভিনেতা আদর জৈনের

এই বছরই নবাব বাহাদুর আর বেগম সাহেবার জীবনে এসেছে দ্বিতীয় সন্তান। কিন্তু সেই সন্তানের মুখ এখনও দেখা হয়নি অভিনেতা আদর জৈনের

  • Share this:

#মুম্বই: কোভিড-১৯ প্যান্ডেমিকের দ্বিতীয় দফা নিয়ে বেশ সতর্ক অভিনেতা আদর জৈন (Adaar Jain)। যথেষ্ট সচেতনতা মেনে নিয়েই অন্য কারও বাড়িতে যাতায়াত করছেন না তিনি। এমনকী, জামাইবাবু সইফ আলি খান (Saif Ali Khan) ও দিদি করিনা কাপুর খান (Kareena Kapoor Khan)-এর বাড়িও যাননি তিনি। এই বছরই নবাব বাহাদুর আর বেগম সাহেবার জীবনে এসেছে দ্বিতীয় সন্তান। কিন্তু সেই সন্তানের মুখ এখনও দেখা হয়নি অভিনেতা আদর জৈনের। বলিউড লাইফকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে অভিনেতা জৈন জানান, তিনি সইফ-করিনার দ্বিতীয় সন্তানের মুখ দেখার জন্য মুখিয়ে আছেন। কিন্তু তা তিনি করতে পারছেন না। মাঝখানে বাধ সেধেছে প্যান্ডেমিক। বর্তমানে আদর নিজের ছবি 'হ্যালো চার্লি (Hello Charlie)-র প্রচারে ব্যস্ত। তিনি নিজে করিনাকে জানিয়েছেন, কাজ সম্পূর্ণ শেষ হলে তবেই তিনি তাদের সন্তানের মুখ দেখবেন। তার আগে সদ্যোজাত এই সন্তানকে কোনও রকম জটিল অবস্থার মধ্যে ফেলতে চান না- এমনটাই জানিয়েছেন আদর।

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে, দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম দেন সইফ-করিনা জুটি। প্রথম সন্তান তৈমুরের (Taimur Ali Khan) মতো, দ্বিতীয় সন্তানকে নিয়ে একেবারেই মাতামাতিতে মাতেননি সইফ-করিনা। এখনও অবধি আনুষ্ঠানিক ভাবে তার নাম ঘোষণা করেননি ওই দম্পতি। এমনকি মিডিয়ার কাছে তার কোনও ছবিও এসে পৌঁছয়নি। করিনা বা সইফ কেউই নিজের দ্বিতীয় সন্তানের ছবি কোনও সামাজিক নেট-মাধ্যমে ছড়িয়ে দেননি। করিনা নিজে তাঁর পরিবারের একটি ছবি দিয়েছেন তাঁর Instagram হ্যান্ডেলে। সেখানে স্বামী সইফ আলি খান ও তার প্রথম সন্তান তৈমুর আলি খানের ছবি থাকলেও, নিজের দ্বিতীয় সন্তানের মুখ ঢেকে রেখেছেন করিনা। তবে করিনার বাবা রণধীর কাপুর (Randhir Kapoor) নিজের সামাজিক নেট মাধ্যমে একটি ছবি দিয়েছিলেন, যেখানে দেখা গিয়েছিল সইফ-করিনার দ্বিতীয় সন্তানের ছবি। যদিও পরে সেই ছবি সরিয়ে দেন রণধীর।

বলিউডে আদর জৈনের অভিষেক ২০১৭ সালে। হাবিব ফয়জল ( Habib Faisal)-এর ছবি কয়েদি ব্যান্ড ( Qaidi Band)-এর মধ্যে দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয় তাঁর। এর পর ফারাহ খান (Farah Khan)-এর হ্যাপি নিউ ইয়ার ( Happy New Year)-এ এবং করণ জোহর (Karan Johar)-এর আ্যায় দিল হ্যায় হ্যায় মুশকিল (Ae Dil Hai Mushkil) এই দুই ছবিতে সহকারী পরিচালক হিসাবে কাজ করেন আদর।

Published by:Rukmini Mazumder
First published: