• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • 'ব্যক্তিগত জীবনে চোরের মত ঢুকবেন না', জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যমকে এক হাত নিলেন অনুষ্কা

'ব্যক্তিগত জীবনে চোরের মত ঢুকবেন না', জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যমকে এক হাত নিলেন অনুষ্কা

বাড়ির বারান্দায় বসে সময় কাটাচ্ছিলেন বিরুষ্কা। আর সে সময় তাঁদের অজান্তে দূর থেকে ক্যামেরা জুম করে তাঁদের ছবি তোলে ওই সংস্থা।

বাড়ির বারান্দায় বসে সময় কাটাচ্ছিলেন বিরুষ্কা। আর সে সময় তাঁদের অজান্তে দূর থেকে ক্যামেরা জুম করে তাঁদের ছবি তোলে ওই সংস্থা।

বাড়ির বারান্দায় বসে সময় কাটাচ্ছিলেন বিরুষ্কা। আর সে সময় তাঁদের অজান্তে দূর থেকে ক্যামেরা জুম করে তাঁদের ছবি তোলে ওই সংস্থা।

  • Share this:

    #মিডিয়া: মা হতে চলেছেন অনুষ্কা শর্মা । এ কথা কার না জানা ! বিরাট ও অনুষ্কা নিজেদের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে এই খুশির খবর সকলকে জানিয়েছেন। তারপর থেকে কিছু জানাতে হলে তাঁরা নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলেই জানাচ্ছেন। বেবি বাম্প নিয়েই সুইমিংপুলে অনুষ্কা বিকিনি পরে স্নান করছেন। এমনকি জিম করার ছবিও শেয়ার করেছেন। বেশ কিছু ফটোশ্যুটও তিনি করিয়েছেন। সব কিছু ঠিকই চলছিল। তবে মিডিয়ার ওপর এবার বেজায় চটেছেন বিরুষ্কা।

    অনুষ্কার ইনস্টাগ্রাম স্টোরি অনুষ্কার ইনস্টাগ্রাম স্টোরি

    সম্প্রতি অনুষ্কা ও বিরাটের একটি ছবি ছাপে একটি জনপ্রিয় পাবলিকেশন হাউস বা মিডিয়া হাউস। তাঁরা তাঁদের সংবাদ পত্রের পাতায় বিরুষ্কার ব্যালকনির একটি ছবি ছাপেন। বাড়ির বারান্দায় বসে সময় কাটাচ্ছিলেন তাঁরা। আর সে সময় তাঁদের অজান্তে দূর থেকে ক্যামেরা জুম করে তাঁদের ছবি তোলে ওই সংস্থা। তারপর সেই ছবি ছেপে দেয়। যা দেখেই চটে যান অনুষ্কা।

    অনুষ্কা তাঁর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে ওই পত্রিকার ছবিটি শেয়ার করে লেখেন, "আমাদের ব্যক্তিগত জীবনে এভাবে চুরি করে ঢোকা বন্ধ করুন। এটা নোংরামি। এখুনি বন্ধ করুন এই সব। আমি এই ফটোগ্রাফার ও সংবাদ সংস্থার তীব্র নিন্দা করছি।" এই পোস্ট শেয়ার করে সরাসরি গালে চড় মারলেন অনুষ্কা। তিনি জানিয়েছেন, করোনা আমাদের জন্য খারাপ সময় নিয়ে এসেছে। কিন্তু তার মধ্যেও আমার মা হওয়ার খবর কিছুটা হলেও আমদের জীবনে শান্তি এনেছে। নতুন ভাবনা এসেছে মনে। আমরা শুধু ডাক্তারের কাছে যাওয়ার জন্য বাইরে যাচ্ছি। আর সেখানেও ক্যামেরা তাক করে বসে আছেন সবাই। এসব এখন বন্ধ হওয়া উচিত। যদিও বিরাট কিছু কমেন্ট করেননি। এই পোস্ট এখন তুমুল ভাইরাল।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: