প্রতারণার টাকা ফেরত পেলেন জাদুকর কন্যা

প্রতারণার টাকা ফেরত পেলেন জাদুকর কন্যা

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের জমানায় , ফোনে ইন্টারনেট থাকার ফলে, বুঝে আবার না বুঝেও ,বিভিন্ন সাইটে ঢুকছে সবাই। আর সেই সুযোগ নিচ্ছে নেট দুনিয়ার চোরেরা ?

  • Share this:

#কলকাতা: প্রতারণার টাকা অবশেষে ফেরত পেলেন মৌবনী সরকার। টাকা ফেরত পেয়ে স্বভাবতই খুশি অভিনেত্রী। ধন্যবাদ জানালেন উন্নত প্রযুক্তি-কে। তাঁর মতে, প্রযুক্তি যেমন মানুষকে ঠকাচ্ছে, তেমনই সেই প্রযুক্তিই আবার ধরে ফেলছে প্রতারণা।গত ১১ জানুয়ারি অভিনেত্রী জাদুকর কন্যা মৌবনী সরকারের ফোনে একটি ফোন আসে, যে তিনি একটি ৪৯ ইঞ্চি রঙিন টিভি জিতেছেন।

সেই লোভে ১৬৯০০ টাকা দিয়েও ফেলেন মৌবনী। প্রথমটা বেশ বিশ্বাসের সঙ্গে প্রতারকরা কথা বলেছিল। টাকাটা চলে যাওয়ার পর,সেই প্রতারকদের সঙ্গে আর যোগাযোগ করতে পারেননি অভিনেত্রী। সঙ্গে সঙ্গে ব্যাংকে ফোন করে সমস্ত ব্যাপারটি জানান মৌবনী। ওই বেসরকারি ব্যাংক তাদের গোয়েন্দা সফটওয়্যারের মাধ্যমে, প্রতারকদের অ্যাকাউন্ট গেটওয়ে-তে নজরদারিতে রাখতে থাকে।

ব্যাংক কর্তৃপক্ষের দাবি ছিল, ওই অ্যাকাউন্ট-এ যে সময় প্রতারকরা আবার টাকা নেওয়ার জন্য খুলবে, তখনই মুহূর্তে ব্যবস্থা হয়ে যাবে।এই বিষয়টি নিয়ে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ অবশ্য মুখ খুলতে চাননি। কারণ এই ধরনের অভিযোগ প্রচুর রয়েছে। তবে যখনই ওই প্রতারকরা তাদের অ্যাকাউন্ট যে মুহূর্তে খোলে, অন্য কারো টাকা জমা হওয়ার জন্য, ঠিক তখনই টাকাটা কেটে চলে আসে মৌবনির অ্যাকাউন্টে।  বর্তমানে পেটিএম মল নামে একটি প্রতারণা চক্র কাজ করছে।

প্রায় প্রতিদিন এইধরণের প্রতারণার শিকার হচ্ছেন বহু মানুষ।   শহরে এটি এম জালিয়াতির বড় চক্র কাজ করছিল।আর এই জালিয়াতির স্বীকার হচ্ছিল বয়স্ক নাগরিকরা,ও খেটে খাওয়া মানুষেরা। পুলিশ এই গাং টিকে ধরতে পারলেও ,এখনো নির্মূল করতে পারেনি। এই প্রতারকরা বিহারের গয়া জেলার ,বলেই এদের নাম দিয়েছে 'গয়া গ্যাং '।

টাকা ফেরত পেয়ে খুবই খুশি মৌবনী। বিশেষ করে ধন্যবাদ দিচ্ছে ওই ব্যাংককে। যখনই জেনেছিলেন প্রতারিত হয়েছেন , সঙ্গে সঙ্গে ব্যাংককে জানিয়েছিল। আর ব্যাংক সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিয়েছিল। তাই উদ্ধার হল টাকা।তিনি এও বলেন, 'এই রকম ঘটনা ঘটলে যাতে সঙ্গে সঙ্গে ব্যাংক ও পুলিশকে জানান।তাহলে টাকা উদ্ধারের সম্ভাবনা থাকে ।’  ইদানিং কালে বেশ কিছু প্রতারক,অনলাইনে বিখ্যাত কোনও কোম্পানির নাম করে,বিভিন্ন ভাবে প্রতারণা করছে। ফোনের মাধ্যমে কোনও ভাবে নিজের তথ্য বা টাকা পয়সা আদান প্রদান না করা ভাল। তাহলে বিপদ এড়ানো যাবে। এই বিজ্ঞপ্তি পুলিশ থেকে জানানো হয়েছে অনেক আগেই।

Sanku Santra

First published: January 17, 2020, 6:52 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर