টাকা ধার করে ডিম কিনলেন বিপাশা !

বিপাশা হোক বা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, খুচরো  না থাকলে আপনাকে দোকানদার একটা জিনিসও দেবে না ৷

বিপাশা হোক বা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, খুচরো না থাকলে আপনাকে দোকানদার একটা জিনিসও দেবে না ৷

বিপাশা হোক বা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, খুচরো না থাকলে আপনাকে দোকানদার একটা জিনিসও দেবে না ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #মুম্বই: দেশে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলে সমস্যায় পড়েছেন সেলিব্রিটিরাও ৷ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী যেমন ঠাকুরের ফুল কিনতে পারেননি ৷ ধার করে কিনেছিলেন জগদ্ধাত্রী পুজোর মিষ্টি ৷ তেমনি দোকানে সামান্য ডিম কিনতে গিয়েই সমস্যায় পড়লেন নায়িকা বিপাশা বসু ! সেকী ! বিপাশার কাছে টাকা ছিল না ? আসলে বর্তমানে গোটা দেশে যা পরিস্থিতি, তাতে টাকা থাকলেও কিছু হবে না ৷ থাকতে হবে খুচরো টাকা ৷ ডিমের মতো ছোট ছোট জিনিস কিনতে এখন খুচরো তো মাস্ট ! তাই বিপাশা হোক বা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, খুচরো  না থাকলে এখন দোকানদার আপনাকে একটা জিনিসও দেবে না ৷ 

    বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও বুধবার একইরকম সমস্যায় পড়েছিলেন ৷ জগদ্ধাত্রী পুজোর ঠাকুর দেখতে গিয়ে ধারে মিষ্টি কিনেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কারণ, খুচরো সমস্যা। মিষ্টির দোকানে গিয়ে ৫০০ টাকার নোট দিলে তা নিতে অস্বীকার করেন মিষ্টির দোকানের কর্মী। বাধ্য হয়েই ধার করে মিষ্টি কেনেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আরও একবার গর্জে উঠেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ এই একই খুচরো সমস্যায় এবার ধার করে ডিম কিনতে বাধ্য হলেন বলিউড ‘ডিভা’ বিপাশা বসু।

    প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণায় রাতারাতি বাতিল ৫০০ ও ১০০০ ৷ দুর্ভোগে অসহায় সাধারণ মানুষ ৷ দিন আনে দিন খায় থেকে উচ্চ মধ্যবিত্ত ৷ বাড়িতে ভাতের হাঁড়ি চড়ানোর টাকা থাকলেও খরচ করার উপায় নেই ৷ ফলে আটকে সমস্ত নিত্যনৈমিত্তিক কাজ ৷ মানুষের এই দুর্ভোগে প্রবল ক্রুদ্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷  তিনি বলেন, ‘‘ দেখে মনে হচ্ছে রাজ্যে অঘোষিত বনধ হচ্ছে ৷ নোট বাতিল হওয়ায় হাসপাতাল, বড়বাজার সর্বত্র সমস্যা ৷ বেশি কাজ দেখাতে গিয়ে দোকান-বাজার সব বন্ধ হয়ে রয়েছে ৷ ৯৯ শতাংশ সাধারণ মানুষের ক্ষতি হয়েছে ৷ ’’

    First published: