corona virus btn
corona virus btn
Loading

শুভ জন্মদিন মহানায়িকা

শুভ জন্মদিন মহানায়িকা
File Photo : Suchitra Sen

রুপোলি পর্দার সোনালি নাম সুচিত্রা সেন । ভারতীয় চলচিত্রের এক অন্যতম নাম সুচিত্রা সেন । তিনি শুধু বাংলা নয় ভারতীয় সিনেমাকেও সমৃদ্ধ করেছেন সমান ভাবে ।

  • Share this:

#কলকাতা: রুপোলি পর্দার সোনালি নাম সুচিত্রা সেন । ভারতীয় চলচ্চিত্রের এক অন্যতম নাম সুচিত্রা সেন । তিনি শুধু বাংলা নয় ভারতীয় সিনেমাকেও সমৃদ্ধ করেছেন সমান ভাবে । নিরসল পরিশ্রম, দক্ষতা, সৌন্দর্য, নিখুঁত অভিনয়, পাহাড় প্রমাণ ব্যক্তিত্বই দর্শকের কাছে করে তুলেছিল স্বপ্ন সুন্দরী ।

১৯৩১ এ আজকের দিনে বাংলাদেশের পাবনায় জন্মগ্রহণ করেছিলেন । রমা দাশগুপ্ত, হ্যাঁ তাঁর বাবা মায়ের দেওয়া নাম । তখনও তিনি দর্শকের চোখেরমণি হয়ে ওঠেননি । ছোটবেলা থেকেই একগুঁয়ে, জেদি স্বভাবের ছিলেন সুচিত্রা সেন । লেখাপড়া করেন পাবনার সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে । কথা বার্তায় সাবলীল, অত্যন্ত রসবোধ ছিল তাঁর মধ্যে জীবনের পরিমিতি বোধই তাঁকে করে তুলে ছিল অনন্যা । তাই তো তিনি সম্রাজ্ঞী থাকতে থাকতেই বিদায় জানিয়ে ছিলেন তাঁর প্রাণের চেয়েও প্রিয় চলচ্চিত্রকে ।

আজ সুচিত্রা সেনের জন্মদিন, এই শুভ জন্মদিনে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক ট্যুইট বার্তায় তাঁর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন ।

Photo : Twitter Photo : Twitter

ব্যক্তিগত জীবন থেকে কর্ম জীবন সব ক্ষেত্রে তিনি নিজের অনবদ্য প্রতিভার পরিচয় রেখে গেছেন । বিয়ে হয় দিবানাথ সেনের সাথে, এক কন্যা মুনমুন ও দুই নাতনি রিয়া, রাইমাই ছিল তাঁর জীবনের বাঁচার রসদ । কিন্তু দর্শকের ভালবাসা তাঁকে এক আলাদা পূর্ণতা দিয়েছিল ।

তিনি প্রথম ভারতীয় অভিনেত্রী যিনি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিলেন । ১৯৬৩ তে মস্কো ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে শ্রেষ্ঠ নায়িকার সম্মান পান বিমল করের সপ্তপদী সিনেমার জন্য । হাসতে হাসতে উত্তম কুমারের সাথে গানে লিপ দিয়েছিলেন এই পথ যদি শেষ না হয় তবে কেমন হত তুমি বলো তো ? সাদা কালো ছবির ইতিহাসে এক বিপ্লব, সপ্তপদী ভারতীয় সিনেমার ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনে ছিল ।

এরপর উত্তম-সুচিত্রা জুটি সারা পৃথিবীর ঈষার কারণ হয়ে দাঁড়ায় একের পর এক হিট ও হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়া ছবির প্রেমে পড়ে ভারতীয় চলচ্চিত্র দর্শকেরা । উত্তম-সুচিত্রা জুটি বেঁধে একের পর হিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন - সপ্তপদী, হারানো সুর, পথে হলো দেরি, সাড়ে চুয়াত্তর, অগ্নিপরীক্ষা, শিল্পী, শাপমোচন ইত্যাদি । উত্তম কুমার ছাড়াও যে তিনি একই রকমের জনপ্রিয় বোঝা যায় সাত পাকে বাঁধা, দীপ জ্বেলে যাই দেখলেই ।

হিন্দি চলচ্চিত্রেও তিনি সমান দক্ষ ছিলেন - আঁন্ধি ছবিতে তাঁর বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন সঞ্জীবকুমার , বোম্বাইকাবাবু ছবিতে তাঁর বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন দেব আনন্দ, মমতা ছবিতে তাঁর বিপরীতে অভিনয় করেছিলেন অশোক কুমার।

ভারতীয় সিনেমায় তাঁর অনবদ্য অবদানের জন্য পদ্মশ্রী ও বঙ্গবিভূষণ পুরস্কারে সম্মানিত করা হয় । তাঁর ভুবন ভোলানো হাসি যে ৮২ বছরে এসে মিলিয়ে যাবে তাঁর কোনও শত্রুও ভাবতে পারেননি । কখনই ভাবেননি সত্যি এই পথ একদিন শেষ হয়ে যাবে । ১৭ জানুয়ারি ২০১৪ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে চলে গেছেন । হাসতে হাসতে সবার হাসি কেড়ে নিয়েছিলেন স্বপ্ন সুন্দরী সুচিত্রা সেন । সেদিন শেষ হয় বাঙালির এক স্বর্ণময় যুগের ।  কিন্তু আজও তিনি সবার মহানায়িকা ।

First published: April 6, 2018, 5:56 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर