• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • রিয়া চক্রবর্তীর ছোটবেলার বান্ধবী সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার, চাপ দিয়েই শ্রুতি মোদিকে পদ পাইয়েছিলেন

রিয়া চক্রবর্তীর ছোটবেলার বান্ধবী সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার, চাপ দিয়েই শ্রুতি মোদিকে পদ পাইয়েছিলেন

রিয়া চক্রবর্তী ৷ ফাইল ছবি ৷

রিয়া চক্রবর্তী ৷ ফাইল ছবি ৷

গভীর ষড়যন্ত্রের ইঙ্গিত পাচ্ছেন তদন্তকারী আধিকারিকেরা

  • Share this:

    #মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তভার ইতিমধ্যেই সিবিআই গ্রহণ করেছে, তদন্ত শুরু করেছিল আগেই তারপর থেকেই সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে জেরা করার পরেই ড্রাগচক্র সংক্রান্ত বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে ৷ জানতে পারা গিয়েছে রিয়া ড্রাগ চক্রের একজন সক্রিয় সদস্য ৷ এরপরেই এনসিবি গ্রেফতার করেছে রিয়াকে ৷ তারপর থেকেই রিয়ার আপাতত মুম্বইয়ের বাইকুলা জেল ৷

    এর মাঝেই বড় তথ্য প্রকাশ্যে এসেছে একদা সুশান্তের ম্যানেজার শ্রুতি মোদির সঙ্গে রিয়ার পুরনো সম্পর্কের কথা ৷ সূত্রের খবর বহু আগেই থেকে রিয়া ও শ্রুতি মোদি একে অপরকে চিনতেন ৷ এমনকি জানতে পারা গিয়েছে শ্রুতি ও রিয়া পরস্পরের বন্ধু ছোটবেলা থেকেই ৷ সুশান্ত সিং রাজপুত শ্রুতি মোদিকে প্রথমে ম্যানেজার রাখতে চাননি কিন্তু পরবর্তীকালে রিয়া সুশান্তকে চাপ দিয়ে শ্রুতি মোদিকে নিজের ম্যানেজার করতে বাধ্য করেন ৷ এমনকি এক আইনজীবী মারফৎ শ্রুতিকে নিয়োগ করা হয়েছিল, যেখানে কোনও আইনজীবী এমন ধরনের নিয়োগ করতে পারেন না ৷

    এমনও জানতে পারা গিয়েছে রিয়া ও শৌভিক ড্রাগচক্রের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেন ও কেনাবেচা করতেন এই খবরও রাখতেন রিয়া ৷ এই বিষয়টির সঙ্গে সম্পূর্ণ ভাবে রিয়া যুক্ত ছিলেন ৷ সুশান্তের কাছ থেকে চাকরি ছাড়ার পরে রিয়া ও অন্য ড্রাগচক্রের সদস্যদের সঙ্গে সর্বদা যোগাযোগ রাখতেন ৷ এই খবর পেয়ে সিবিআই শ্রুতি মোদির ফোন বাজেয়াপ্ত করেছে ৷ ড্রাগ মাপিয়াদের সঙ্গে একাধিক কথাবার্তা ও চ্যাটের রেকর্ড পাওয়া গিয়েছে ৷

     সুশান্তের যে ১৫ কোটি টাকা তছরুপের অভিযোগ করেছিলেন সেই ১৫ কোটি টাকা শ্রুতি মোদির বাবার সংস্থায় বিনিয়োগ করার মত গুরুতর অভিযোগ উঠেছে ৷ এক বিবৃতিতে শ্রুতি মোদির আইনজীবী জানিয়েছেন রিয়া ও শ্রুতি দু'জনেই কলকাতায় মেয়ে পরবর্তীকালে তাঁদের আলাপ হয়েছিল ৷ শ্রুতির ড্রাগচক্রের বিষয়ে তিনি জানেনা বলেই জানিয়েছেন ৷ এই বিষয়ে এনসিবি তদন্ত করছে মামলাটি যতক্ষণ আদালতে না উঠছে ততক্ষণ তিনি কোনও মন্তব্য করবেন না ৷

    Published by:Arjun Neogi
    First published: