Home /News /education-career /
Madhyamik Exam: মা মারা গেছেন, স্কুল ড্রেসের সঙ্গে কাছা! মাধ্যমিকে অঙ্ক পরীক্ষা দিল ছেলে

Madhyamik Exam: মা মারা গেছেন, স্কুল ড্রেসের সঙ্গে কাছা! মাধ্যমিকে অঙ্ক পরীক্ষা দিল ছেলে

Madhyamik Exam: Son losses mother and gives maths exam

Madhyamik Exam: Son losses mother and gives maths exam

Madhyamik Exam: পরীক্ষা চলাকালীন মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসারত তার মা নবনীতা কর্মকার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

  • Share this:

    #মালদহ: মাতৃবিয়োগের শোক নিয়ে মাধ্যমিকের অঙ্ক পরীক্ষায় বসল ইন্দ্রনীল কর্মকার। মায়ের মুখাগ্নি করে কুশ হাতে সোমবার পরীক্ষার হলে পৌঁছল মালদহের অক্রুমনি করোনেশন ইন্সটিটিউশনের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ইন্দ্রনীল। তার পাশে দাঁড়িয়েছেন স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সহ শিক্ষক- শিক্ষিকারা। তাকে সাহস যোগাতে সোমবার পরীক্ষার আগে দেখা করেন স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক।

    শনিবার মালদহ শহরের হিন্দি হাইস্কুলে বসে পরীক্ষা দিচ্ছিল আক্রমনি করোনেশন ইনষ্টিউশনের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী ইন্দ্রনীল কর্মকার। পরীক্ষা চলাকালীন মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসারত তার মা নবনীতা কর্মকার শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তবে পরিবারের লোকেরা বিষয়টি তাকে জানাননি। পরীক্ষা শেষ করে বাড়ি ফিরে আত্মীয় পরিজনদের মুখে মায়ের মৃত্যু সংবাদ পায়।

    আরও পড়ুন - Healthy Lifestyle: ভাজা না পোচ নাকি ডিম সেদ্ধ কিভাবে খাবেন, গুণাগুণ কিন্তু অসীম

    নিজের জীবনের প্রথম বড় পরীক্ষা চলাকালীন মাকে হারিয়ে শোকাহত হয়ে পড়ে ইন্দ্রনীল। বাবা চন্দ্রশেখর কর্মকার পেশায় একজন ব্যবসায়ী। মালদহের ইংরেজবাজার শহরের দেশবন্ধু পাড়ায় বাড়ি। মা নবনীতা কর্মকার বেশ কিছুদিন ধরেই গুরুতর অসুস্থ ছিলেন। মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রথম দিনেই ইন্দ্রনীলের মা নবনীতা কর্মকার মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছিলেন তিনি। ছেলের জীবনের প্রথম পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার আগেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন তিনি। আক্রমনি করোনেশন ইনস্টিটিউশন এর পড়ুয়া ইন্দ্রনীল মেধাবী হিসাবেই পরিচিত। তার মেধার গুনে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রিয় ছাত্র হয়ে উঠেছে। তবে মাধ্যমিক পরীক্ষার চলাকালীন তার মা অসুস্থ হওয়ার খবর হতাশ করে শিক্ষক শিক্ষিকাদের।তখন থেকেই পাশে দাঁড়াত স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকারা।

    রবিবার মায়ের শেষকৃত্য অনুষ্ঠান শেষ কর ইন্দ্রনিল। বাবা মায়ের একমাত্র সন্তান ইন্দ্রনীল। তাই তাকেই মায়ের মুখাগ্নি করতে হয়েছে। রবিবার দিন ভোর শোকের মধ্যেই কেটেছে তার। সোমবার সকালে বাবার হাত ধরে সেন্টারে পরীক্ষা দিতে আসে। মালদা শহরের হিন্দি হাই স্কুল কর্তৃপক্ষ তার পাশে দাঁড়ায়। পরীক্ষা চলাকালীন তার যাতে কোনরকম সমস্যা না হয় সে ব্যবস্থা করা হয়েছিল স্কুলের পক্ষ থেকে। তবে ইন্দ্রনীল এদিল বন্ধুদের সাথেই নিজের সিটে বসে পরীক্ষা দেয়।

    Harashit Singha

    Published by:Debalina Datta
    First published:

    Tags: Madhyamik 2022

    পরবর্তী খবর