• Home
  • »
  • News
  • »
  • education-career
  • »
  • JOB NEW CASE FILED AGAINST UPPER PRIMARY TEACHER RECRUITMENT AND SCC IN CALCUTTA HIGH COURT DIVISION BENCH SB

SSC: উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে ফের মামলা, অনিশ্চিত ১৪৩৩৯ ছেলে-মেয়ের ভবিষ্যৎ!

ফের জটিলতা

SSC: উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের অভিযোগ নিয়ে বিচারপতি সুব্রত তালুকদার ও বিচারপতি সৌগত ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চে এবার নতুন লড়াই।

  • Share this:

#কলকাতা: উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে আবারও মামলার গেরো।  নিয়োগ নিয়ে আইনি লড়াই এবার পৌঁছাল ডিভিশন বেঞ্চে। বিচারপতি সুব্রত তালুকদার ও বিচারপতি সৌগত ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চে এবার নিয়োগ নিয়ে নতুন লড়াই। সিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশ চ্যালেঞ্জ করে আপিল মামলা করেছেন একাধিক চাকরিপ্রার্থী।

ভৌতবিজ্ঞান বিষয়ের নিয়োগ প্রক্রিয়া চ্যালেঞ্জ করে সোমবার বিষয়টি ডিভিশন বেঞ্চের নজরে আনেন আইনজীবী সুবীর সান্যাল। শুক্রবার উচ্চ প্রাথমিক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ। চাকরীপ্রার্থীদের অভিযোগ থাকলে ২ সপ্তাহের মধ্যে কমিশনকে জানাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। পরের ১০ সপ্তাহে প্রতিটি অভিযোগ খুঁটিয়ে দেখে নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল সচিব পর্যায়ের আধিকারিককে।

যদিও ডিভিশন বেঞ্চে মামলাকারী রাজীব ব্রহ্মের আইনজীবী রুচিরা চট্টোপাধ্যায় ও আইনজীবী বিশাখ ভট্টাচার্য জানান, বৃহস্পতিবার স্কুল সার্ভিস কমিশন নম্বার সহ ইন্টারভিউ তালিকা প্রকাশ করে দুপুর ১২টা নাগাদ। তা খতিয়ে দেখতেই ইন্টারভিউ তালিকায় একাধিক অসঙ্গতি সামনে আসে। অতিরিক্ত হলফনামা সহকারে বিষয়টি সিঙ্গল বেঞ্চের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় নজরে আনা হয়। কিন্তু সেই অতিরিক্ত হলফনামা গ্রহণ না করেই নির্দেশ দিয়ে দেয় সিঙ্গল বেঞ্চ। অভিযোগে ঢাকা নিয়োগ প্রক্রিয়া এগোনো কীভাবে সম্ভব, প্রশ্ন তুলেছেন আইনজীবী রুচিরা চট্টোপাধ্যায়। ইন্টারভিউ তালিকায় অনিয়মের অভিযোগের নিষ্পত্তি কমিশন করবে ১২ সপ্তাহে। এই সময়কালে, নিয়োগ প্রক্রিয়া এগোনোর অনুমতি দিয়েছে সিঙ্গেল বেঞ্চ। এবার এই সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করেই মামলা হল হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে।

উল্লেখ্য, ইন্টারভিউ তালিকা নিয়ম মেনে প্রকাশিত না হওয়ায় উচ্চ প্রাথমিক নিযোগ প্রক্রিয়ার উপর অন্তর্বতী স্থগিতাদেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। এমনকী স্কুল সার্ভিস কমিশনকে "অপদার্থ" বলেও আক্রমণ করেছিলেন তিনি। কিন্তু নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের পর আদালত জানায়, উচ্চ প্রাথমিক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় এবার একটা শেষ হওয়া উচিত।

রাজীব ব্রহ্ম সহ চাকরীপ্রার্থীদের অবশ্য অভিযোগ, বারবার কমিশনের ভুল তাঁদেরকেই তুলে ধরতে হচ্ছে। কমিশনের নিরপেক্ষতা কোথায়! উচ্চ প্রাথমিকের আরও একাধিক পরীক্ষার্থীর আইনজীবী সুদীপ্ত দাশগুপ্ত ও ফিরদৌস শামিম জানান, হাইকোর্ট একবার উচ্চ প্রাথমিক নিয়োগ প্রক্রিয়া খারিজ করে দেয়। নতুন করে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরুর নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি মৌসুমি ভট্টাচার্য। নতুন নিয়োগ প্রক্রিয়াতেও একাধিক অনিয়ম সামনে আসছে। কমিশনের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি থাকছে কই? চলতি সপ্তাহেই ডিভিশন বেঞ্চে হতে পারে নিয়োগ মামলার শুনানি।

Published by:Suman Biswas
First published: