• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • WOMAN WITH BROTHER IN LAW KILL MINOR SON TO HIDE AFFAIR IN GUJARAT RC

Mother Killed Son: বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক জেনে ফেলায় ৮-এর ছেলেকে নৃশংস খুন মা ও কাকার!

প্রতীকী ছবি।

২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে পুলিশের কাছে ছেলের নিরুদ্দেশ হওয়ার অভিযোগ দায়ের করেছিলেন খোদ মা (Mother Killed Son)।

  • Share this:

    #আহমেদাবাদ: ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে পুলিশের কাছে ছেলের নিরুদ্দেশ হওয়ার অভিযোগ দায়ের করেছিলেন খোদ মা (Mother Killed Son)। সেই মা ও তার দেওরকেই শেষ পর্যন্ত এই ঘটনায় গ্রেফতার করল পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাতের আহমেদাবাদে। রবিবার আট বছরের ছেলেকে খুনের অভিযোগে মা জ্যোৎস্না পটেল ও কাকা রমেশ পটেলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আহমেদাবাদের ভীরমগামের গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয় দুই অভিযুক্তকে।

    প্রায় তিন বছর আগের এক সেপ্টেম্বরে মিষ্টি কিনতে গিয়ে আর ফিরে আসেনি আট বছরের ছেলে। তখনউ ভীরমগামের গ্রামীণ পুলিশ স্টেশনে ছেলের নিরুদ্দেশ হওয়ার অভিযোগ দায়ের করেছিল পরিবার। পুলিশ সূত্রে খবর, মা জ্যোৎস্না পটেলের তার দেওয়রের সঙ্গে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। সেটি ছেলে জেনে যাওয়ার কারণেই তাকে খুন করে মা ও কাকা।

    পুলিশের তরফে একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, '৮ বছরের হার্দিক মা ও কাকার অবৈধ সম্পর্কের কথা জানতে পেরেছিল। মা ও কাকা সন্দেহ করেছিল সেই কথা হয়তো হার্দিক তার বাবা জগদীশ পটেলকে জানিয়ে দেবে। জেনে যাবে পরিবার ও গ্রামবাসীরাও। এরপরই তাকে পথ থেকে সরানোর পরিকল্পনা করে মা ও কাকা। ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সালে ছেলেকে জামালপুর গ্রামের ফাঁকা জমিতে ডেকে পাঠায় কাকা। সেখানেই শ্বাসরোধ করে ছেলেকে খুন করে দুইজনে। এর পর লাশ পুড়িয়ে মাটিতে কবর দেয় তারা।'

    পুলিশ জেরায় জানতে পেরেছে, এর কিছুদিন পর ফের ওই জমিতে গিয়ে রমেশ ভাইপোর দেহের অবশিষ্টাংশ খুঁড়ে বের করে গ্রামের ড্রেনে ভাসিয়ে দেয়। প্রমাণ লোপাটের জন্য এই কাজ করেছিল রমেশ। দুই অভিযুক্তে গ্রেফতার করে আইপিসি ৩০২ ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ। ছেলের নিরুদ্দেশ হয়ে যাওয়ার ঘটনার তদন্তে নেমেই প্রতিবেশী ও পরিবারের লোকেদের কথায় একাধিক অসঙ্গতি পাওয়া যায়। অসঙ্গতি মেলে মা ও কাকার বয়ানেও। সেই সূত্রেই শেষ পর্যন্ত পুলিশের জালে আসল অপরাধীরা।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: