মধুচক্রের ফাঁদে যুবক, পুলিশের ছকে ধরা পড়ল ‘গ্যাং অফ গার্লস ’

প্রথমে ডেকে পাঠিয়ে জোর করে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন ৷ তারপর প্রচুর টাকা চেয়ে ব্ল্যাকমেল ৷

প্রথমে ডেকে পাঠিয়ে জোর করে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন ৷ তারপর প্রচুর টাকা চেয়ে ব্ল্যাকমেল ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #চন্ডীগড়: প্রথমে ডেকে পাঠিয়ে জোর করে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন ৷ তারপর প্রচুর টাকা চেয়ে ব্ল্যাকমেল ৷ হরিয়ানায় একদল মেয়ের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ আনলেন এক ব্যক্তি ৷

    হরিয়ানার ফরিদাবাদ অঞ্চলের পালি গ্রামের বাসিন্দা অমিত ভাদানা এক দল মহিলার বিরুদ্ধে শারীরিক নিগ্রহ ও ব্ল্যাকমেলের অভিযোগ এনেছেন ৷ পেশায় ফাইনান্সর অমিত পুলিশকে জানায়, কিছুদিন আগে তাঁর মোবাইলে এক মহিলার ফোন আসে ৷ মহিলা ক্রাইম ব্রাঞ্চ অফিসার হিসেবে নিজের পরিচয় দেন ৷ কিছুদিন কথা চলার পর তাঁকে একটি নির্দিষ্ট জায়গায় আসার কথা বলা হয় ৷ অমিত মহিলাকে বিশ্বাস করে সে জায়গায় পৌঁছায় ৷ তারপর সেখানে তাঁর যা অভিজ্ঞতা হয় তা রীতিমতো চাঞ্চল্যকর ৷

    অমিতের বয়ানে, সেখানে যাওয়ার পর তাঁকে একদল মহিলা ঘিরে ধরে এবং তাদের সকলের সঙ্গে জোর করে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনে বাধ্য করে ৷ পরে বিশাল অঙ্কের টাকা চেয়ে ব্ল্যাকমেলও করা হয় তাঁকে ৷ টাকা না দিলে পুলিশে মিথ্যে কেস দায়ের করা হবে বলেও ভয় দেখানো হয় ৷ টাকা দিতে অসম্মত হওয়ায় বেধড়ক মারধর করা হয় পেশায় ফাইনান্সর অমিতকে ৷

    লাগাতার হুমকি পেতে পেতে তিতিবিরক্ত অমিত অবশেষে পুলিশে রিপোর্ট করার সিদ্ধান্ত নেন ৷ থানায় গিয়ে পুলিশকে সব জানাতেই তারা দোষীদের ধরার জন্য একটি পরিকল্পনা করেন ৷ সেই পরিকল্পনা মতো ব্ল্যাকমেলারদের সঙ্গে দেখা করে তাদের চাহিদা মতো অর্থ দিয়ে দিতে পরামর্শ দেয় পুলিশ ৷

    টাকা নিতে এসে পুলিশের ফাঁদে পড়েন অভিযুক্তরা ৷ তাদের মধ্যে দু’জন মহিলাকে গ্রেফতার করা হলেও বাকি তিন মহিলা ও দলে থাকা একজন পুরুষ পুলিশের হাত ছাড়িয়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় ৷ অভিযু্ক্তদের জেরা করে পলাতকদের খোঁজে ফরিদাবাদ শহরের সঞ্জয় কলোনিতে তল্লাশি চালায় পুলিশ ৷ কিন্তু এখনও অধরা বাকি অপরাধীরা ৷

    First published: