বিয়ের পরই প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়েছিল স্ত্রী, আক্রোশে একে একে ১৮ মহিলাকে নৃশংস খুন! 'সিরিয়াল কিলারের কীর্তিতে স্তম্ভিত দেশ

বিয়ের পরই প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়েছিল স্ত্রী, আক্রোশে একে একে ১৮ মহিলাকে নৃশংস খুন! 'সিরিয়াল কিলারের কীর্তিতে স্তম্ভিত দেশ
সিরিয়াল কিলার (প্রতীকী ছবি)

নৃশংস খুনের পরে প্রমাণ লোপাটের জন্য পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল মুখ। ২০ দিন চিরুনি তল্লাশির পরে গ্রেফতার সিরিয়াল কিলার।

  • Share this:

    #হায়দরাবাদ: নৃশংস খুনের পরে প্রমাণ লোপাটের জন্য পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল মুখ। তেলেঙ্গনার জুবিলি হিলসে সাংঘাতিক এই ঘটনার তদন্তে নেমে শিউরে উঠেছিলেন দুঁদে পুলিশ আধিকারিকরা। ২০ দিন চিরুনি তল্লাশির পরে গ্রেফতার হয় খুনি মাইনা রামুলু (৪৫)। তাঁকে জেরা করতেই চোখ কপালে উঠেছে তেলেঙ্গনা পুলিশের।

    জেরায় রামুলু পুলিশকে জানিয়েছে, বিয়ের মাত্র কিছুদিনের মধ্যেই অন্য পুরুষের সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছিল স্ত্রী। তারপরেই মহলাদের প্রতি অদ্ভুত আক্রোশ জন্মায় তার। সেই আক্রোশ থেকেই সে এক এক করে ১৮ জন মহিলাকে খুন করে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পুলিশের খাতায় একাধিক অপরাধমূলক কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকার রেকর্ড রয়েছে রামুলুর বিরুদ্ধে। এমনকি দীর্ঘদিন জেল খাটার পরে সংশোধনাগার থেকে ২০১১ সালে পালিয়ে যায় সে।

    জুবিলি হিলসে ভেঙ্কাতাম্মা নামের এক মহলা খুনের ঘটনায় ৪ জানুয়ারি হায়দরাবাদ এবং রাচাকোন্দা পুলিশের যৌথ অভিযানে মাইনা রামুলুকে গ্রেফতার করা হয়। এরপরেই সামনে এসেছে সিরিয়াল কিলার রামুলুর নৃশংস কীর্তি। রাচাকোন্দার পুলিশ কমিশনার মহেশ ভগবত জানিয়েছেন, জেরায় রামুলু জানিয়েছে স্থানীয় সরাইখানায় আসত যে সমস্ত একাকী মহিলা, তাঁদেরকেই টার্গেট করত সে। অর্থের বিনিময়ে শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব দিত। সেই প্রস্থাবে রাজি হয়ে গেলেই বন্ধুত্ব তৈরি করত তাঁর সঙ্গে। ধীরে ধীরে সখ্যতা তৈরি হয়ে গেলে, তাঁকে খুন করে দামী জিনিস নিয়ে চম্পট দিত। পুলিশ জানিয়েছে, রাচাকোন্দা পুলিশ কমিশনারেট, মেহেবুবানগর এবং রাঙ্গারেড্ডি জেলার ১৮ মহিলাকে এভাবেই একে একে খুন করে রামুলু।


    পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, রামুলু পেশায় পাথর কাটার শ্রমিক। ৪ জানুয়ারির আগে ২১টি মামলায় সে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়, তার মধ্যে ১৬টি খুনের মামলা। কিন্তু কেন রামুলু পাথর কাটার শ্রমিক থেকে 'সিরিয়াল কিলার' হয়ে গেল? জানা গিয়েছে, মাত্র ২১ বছর বয়স্যা রামুলুকে বিয়ে দেওয়া হয়। বিয়ের মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই স্ত্রী অন্য পুরুষের সঙ্গে চলে যান রামুলুকে ছেড়ে। তারপরেই রাগে অন্ধ হয়ে একে একে মহিলাদের খুন করতে শুরু করে সে।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: