ক্রাইম

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কলেজের গেটে ছাত্রীকে গুলি! হরিয়ানায় শ্যুটআউট, ধরা পড়ল সিসিটিভি-তে

কলেজের গেটে ছাত্রীকে গুলি! হরিয়ানায় শ্যুটআউট, ধরা পড়ল সিসিটিভি-তে
ছাত্রীকে গুলি করছে অভিযুক্ত যুবক৷

গোটা ঘটনার ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়তেই চাঞ্চল্য ছড়ায়৷ তদন্তে নেমে প্রথমে তৌসিফ এবং পরে রেহান নামে দ্বিতীয় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ৷

  • Share this:

#হরিয়ানা: কলেজের সামনেই শ্যুটআউট৷ ছাত্রীকে গুলি করে খুন করল এক যুবক, গোটা ঘটনা ধরা পড়ল সিসিটিভি-তে৷ চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে হরিয়ানার বল্লভগড়ে৷ ইতিমধ্যেই দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷

সোমবার বিকেল ৩.৪০ মিনিট নাগাদ দিল্লি থেকে মাত্র তিরিশ কিলোমিটার দূরে হরিয়ানার এই কলেজের গেটের সামনে এই ঘটনা ঘটে৷ সিসিটিভি-তে দেখা যাচ্ছে, এক বান্ধবীর সঙ্গে কলেজ থেকে পরীক্ষা দিয়ে বেরনোর সঙ্গে সঙ্গেই নিকিতা তোমার নামে ওই যুবতীর উপরে হামলা চালায় এক যুবক৷ আগে থেকেই একটি গাড়ি নিয়ে নিকিতার জন্য অপেক্ষা করছিল সে৷ প্রথমে টেনেহিঁচড়ে নিকিতাকে গাড়িতে তোলার চেষ্টা করে তৌসিফ নামে মূল অভিযুক্ত ওই যুবক৷ কোনওরকমে নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করেন ওই যুবতী৷ অপহরণের চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে নিকিতাকে গুলি করে তৌসিফ৷ মাটিতে লুটিয়ে পড়েন নিকিতা৷ তখনই গাড়ি থেকে আর এক যুবক বেরিয়ে এসে তৌসিফকে গাড়িতে উঠিয়ে নেয়৷

গোটা ঘটনার ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়তেই চাঞ্চল্য ছড়ায়৷ তদন্তে নেমে প্রথমে তৌসিফ এবং পরে রেহান নামে দ্বিতীয় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ৷ জানা গিয়েছে, নিকিতা এবং তৌসিফ পূর্ব পরিচিত৷ ২০১৮ সালেও একবার নিকিতাকে অপহরণ করেছিল তৌসিফ৷ তখন নিকিতার পরিবারের তরফে পুলিশে অভিযোগও দায়ের করা হয়৷ যদিও মেয়ের ভবিষ্যতের কথা ভেবেই সেই অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেয় নিকিতার পরিবার৷

এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতীয় মহিলা কমিশন৷ যথাযথ তদন্তের দাবিতে হরিয়ানা পুলিশকেও চিঠি দিয়েছে তারা৷ নিহত কলেজ ছাত্রীর মা দাবি করেছেন, তাঁর মেয়ের মতোই যেন গুলি করে মারা হয় দুই অভিযুক্তকে৷

এই ঘটনায় হরিয়ানা জুড়েও ব্যাপক ক্ষোভ ছড়িয়েছে৷ যথাযথ তদন্ত ও সঠিক বিচারের দাবিতে ফরিদাবাদ থেকে মথুরাগামী রাস্তা অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা৷ ঘটনার তদন্তে বিশেষ তদন্তকারী দল বা সিট গঠন করেছে হরিয়ানা সরকার৷
Published by: Debamoy Ghosh
First published: October 27, 2020, 5:36 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर