ঘুমন্ত দম্পতিকে হত্যা, মৃত মহিলার শরীরে মেটাল সেক্সের খিদে,ছাড় পেল না দশ বছরের মেয়েও

ঘুমন্ত দম্পতিকে হত্যা, মৃত মহিলার শরীরে মেটাল সেক্সের খিদে,ছাড় পেল না দশ বছরের মেয়েও

এই নৃশংস হত্যাকাণ্ডই প্রথম নয়, এরকমই বীভৎস ঘটনা আগেও ঘটিয়েছে ৷ শুধু উত্তরপ্রদেশই নয়, হরিয়ানা, দিল্লি ও পশ্চিমবঙ্গেও অতীতে এমন বিকৃত অপরাধ ঘটিয়েছে সে ৷

  • Share this:

#আজমগড়: ঘুমন্ত দম্পতিকে প্রথমে গলা টিপে খুন ৷ তারপর মৃতের স্ত্রীয়ের নিথর দেহকে ছিঁড়ে খুবলে ধর্ষণের পরও শেষ হয়নি পাশবিক অত্যচার ৷ মৃতের ১০ বছরের ছোট মেয়েকেও ছাড়েনি ধর্ষক ৷ নৃশংসতার এখানেই শেষ নয়, দম্পতির সদ্যজাত শিশুকেও গলা টিপে খুন করে সে ৷ ৩৮ বছরের অপরাধীর নির্বিকার স্বীকারোক্তিতে শিউরে উঠছেন তদন্তকারীরাও ৷ উত্তরপ্রদেশের এক দম্পতি ও তাদের সন্তানের হত্যাকাণ্ডের দায়ে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ জেরায় প্রকাশ্যে আসে অপরাধের বীভৎসতা ৷

পুলিশের দাবি, ধৃত ব্যক্তি সেক্স ম্যানিয়াক এবং নেক্রোফাইল ৷ তাঁর নাম নাসিরুদ্দিন ৷ উত্তরপ্রদেশের আজমগড়ে ওই পরিবারের নৃশংস হত্যাকাণ্ডই প্রথম নয়, এরকমই বীভৎস ঘটনা আগেও ঘটিয়েছে ৷ শুধু উত্তরপ্রদেশই নয়, হরিয়ানা, দিল্লি ও পশ্চিমবঙ্গেও অতীতে এমন বিকৃত অপরাধ ঘটিয়েছে সে ৷ অবশেষে সোমবার উত্তরপ্রদেশ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্তকে ৷

আজমগড় এসপি ত্রিবেণী সিং বলেন, জেরায় অভিযুক্ত জানিয়েছে গত ২৪ নভেম্বর মুবারকপুর এলাকার বাসিন্দা ওই দম্পতির বাড়িতে যায় ৷ আগের পরিকল্পনা মতোই ৩০ বছর বয়সী ওই মহিলা ও তাঁর স্বামীকে হত্যা করে সে ৷ পরে প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে মহিলার মৃতদেহকে একাধিকবার ধর্ষণ করে সে ৷ এরপরে মহিলার ১০ বছরের মেয়ের উপর যৌন অত্যাচার চালায় এবং দম্পতির ৪ বছরের সন্তানকেও খুন করে ৷

এসপি ত্রিবেণী সিং আরও জানিয়েছেন, একাধিকবার এমন অপরাধ সে ঘটিয়েছে তাও সে জেরায় স্বীকার করেছে ৷ আক্রমণ চালানোর আগে রীতিমতো অকুস্থলের রেইকি করে  পরিকল্পনা করে ঘটাত প্রতিটি ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ড৷ প্রতিবারের মতো এবারও ওই দম্পতির বাড়িতে ঢোকার আগে নাসিরুদ্দিন স্টিমুলেটিং ড্রাগ নেয় ৷ আগেরবারের মতোই সঙ্গে নিয়েছিল কন্ডোম ৷ খুনের জন্য ব্যবহার করে ছুরি ৷ মৃত্যু নিশ্চিত করতে ভারী পাথর দিয়ে বারংবার আঘাতে থেঁতলে দেয় মৃতদেহগুলি ৷

পুলিশি জেরার মুখে নাসিরুদ্দিন নিজেই জানিয়েছে, ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ড শেষে মৃতদেহগুলি থেকে জামাকাপড় টেনে ছিঁড়ে দেয় সে ৷ এছাড়া পুরো ঘটনাটি ভিডিও করে নিজের কাছে রেকর্ড হিসেবে রেখে দিয়েছিল সে ৷ ভয় দেখাতে নিজের শালীকেও সেই ভিডিও পাঠিয়েছিল নাসিরুদ্দিন ৷ স্বীকারোক্তি ও পারিপার্শ্বিক তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতেই এই বিকৃতমনস্ক অপরাধীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷

First published: 08:01:33 PM Dec 03, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर