corona virus btn
corona virus btn
Loading

#Valentien'sDay: ভালোবাসার পরীক্ষা নিতে প্রেমিককে বিষ খাওয়ানো! ষড়যন্ত্র খোদ প্রেমিকার, সঙ্গী মা

#Valentien'sDay: ভালোবাসার পরীক্ষা নিতে প্রেমিককে বিষ খাওয়ানো! ষড়যন্ত্র খোদ প্রেমিকার, সঙ্গী মা
Photo- Representive

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তমলুকের একটি নার্সিংহোমে যুবককে ভর্তি করা হয়েছে

  • Share this:
 #ভগবানপুর : ভ্য়ালেনটাইন্স ডে-তে বিষ খাইয়ে প্রেমিকের প্রেমের পরীক্ষা! পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুরে চাঞ্চল্য়কর অভিযোগ। ভগবানপুর থানার মহম্মদপুরে এই ঘটনাকে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।  প্রেমিকার মাকে গ্রেফতার করেছে ভগবানপুর থানার পুলিশ। অভিযোগ, মেয়ের প্রেমিকের পরীক্ষা নিতে তাঁকে জোর করে বিষ খাইয়ে দেন তিনি। এই ঘটনায় প্রেমিকার মা ছাড়াও আরও ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তমলুকের একটি নার্সিংহোমে যুবককে ভর্তি করা হয়েছে।
এলাকাবাসীর দাবি, ভগবানপুর থানার মহম্মদপুর গ্রামের বাসিন্দা রতন মান্নার সাথে মহম্মদপুর হাইস্কুলের নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে । মহম্মদপুরের পাশের গ্রাম বেনাউদায় প্রেমিকার বাড়ি। মেয়ের বাড়ির লোকজনের প্রথম থেকেই এই প্রেমে আপত্তি ছিল।
এই নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে আগেও দু'একবার ঝামেলা হয়েছে। কিন্তু তাতে কোও লাভ হয়নি। যুবক-যুবতীকে পৃথক করা যায়নি। তাই মেয়ের প্রেমিককে উচিৎ শিক্ষা দিতে ছেলের বাড়িতে শুক্রবার হাজির হয় তাঁর পরিবার। সঙ্গে ছিলেন কয়েকজন আত্মীয়স্বজনও। সেখানেই কথা কাটাকাটি হয় প্রেমিক রতন ও প্রেমিকার মার মধ্যে।
ছেলের বাড়ির অভিযোগ, সেই সময় তাঁকে বিষ খেয়ে নিজের প্রেমের পরীক্ষা দিতে বলে প্রেমিকার মা। প্রথমে বিষ খেতে অস্বীকার করে রতন। তারপরই বিষের শিশি তাঁর  মুখে জোর করে ঢেলে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেছেন ছেলের পরিবারের সদস্য়রা। শুধু বিষ খাওয়ানো নয়,  সেই অবস্থায় তাকে মারধরও করা হয় বলে অভিযোগ। চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করে দেয় রতনের পরিবার। চেঁচামেচি শুনে এলাকাবাসীরা রতনের বাড়িতে ছুটে আসেন। অভিযুক্তদের কয়েকজন তার আগেই পালিয়ে যায়। তবে মেয়ের মা-সহ পাঁচজনকে ঘিরে ফেলে গ্রামের বাসিন্দারা। ভগবানপুর থানার পুলিশ গিয়ে কোনও রকমে তাদের উদ্ধার করে। প্রেমিক রতন তমলুকের একটি নার্সিংহোমে চিকিৎসাধীন রয়েছে।চিকিৎসকদের দাবি, আতঙ্ক কাটেনি তাঁর। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, গ্রেফতার হওয়া পাঁচ জনকে শুক্রবার কাঁথি মহকুমা আদালতে পাঠানো হয়েছে।
সুজিত ভৌমিক
 
Published by: Debalina Datta
First published: February 14, 2020, 7:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर