• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • ODISHA MAN ARRESTED FOR ALLEGEDLY INSERTING LIQUOR BOTTLE INTO HIS WIFES PRIVATE PARTS AFTER SHE REFUSED TO GET INTO PROSTITUTION RC

দেহ ব্যবসায় অরাজি হওয়ার রাগে স্ত্রীয়ের যৌনাঙ্গে বোতল ঢোকাল স্বামী!

প্রতীকী ছবি।

বহুবার চেষ্টা করেও মেলেনি ফল। দেহ ব্যবসায় নামতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীয়ের গোপনাঙ্গে শেষ পর্যন্ত বোতল ঢোকাল স্বামী। এমনই ভয়ঙ্কর ঘটনার সাক্ষী ওড়িশা। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ওড়িশার চন্দ্রশেখরপুর থানা এলাকায়।

  • Share this:

    #ওড়িশা: বহুবার চেষ্টা করেও মেলেনি ফল। দেহ ব্যবসায় নামতে রাজি না হওয়ায় স্ত্রীয়ের গোপনাঙ্গে শেষ পর্যন্ত বোতল ঢোকাল স্বামী। এমনই ভয়ঙ্কর ঘটনার সাক্ষী ওড়িশা। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ওড়িশার চন্দ্রশেখরপুর থানা এলাকায়। স্ত্রীকে নিগ্রহের জন্য অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

    পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম চন্দন আচার্য। পেশায় তিনি একজন অটোচালক। নির্যাতিতার সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়েছিল ১০ বছর আগে। তাঁদের বছর পাঁচেকের এক কন্যাসন্তান রয়েছে। পুলিশে দায়ের করা অভিযোগে নির্যাতিতা জানিয়েছেন, দেহ ব্যবসায় নামানোর জন্য অনেক বছর ধরে অত্যাচার করছেন তাঁর স্বামী। সেই অত্যাচার চূড়ান্ত সীমায় পৌঁছয় দিন পাঁচেক আগে।

    মহিলার দাবি, ওই দিনও আরও এক বার দেহ ব্যবসায় নামার জন্য স্ত্রীকে চাপ দেন অভিযুক্ত। কিন্তু তিনি মহিলা রাজি হননি। সন্ধ্যায় অসংলগ্ন অবস্থায় ঘরে ফিরে স্ত্রীকে লোহার রড দিয়ে মারতে থাকেন ওই ব্যক্তি। এর পরই স্ত্রীর যৌনাঙ্গে ঢুকিয়ে দেয় বোতল। অচৈতন্য অবস্থায় ঘরেই পড়ে থাকেন মহিলা। পরে জ্ঞান ফিরলে মেয়েকে গোটা ঘটনার কথা জানান নির্যাতিতা। তিনিই খবর দেন পুলিশকে।

    পুলিশ গিয়ে নির্যাতিতা ও তাঁর মেয়েকে একটি বন্ধ ঘর থেকে উদ্ধার করে। এবং অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির বেশ কয়েকটি ধারায় মামলাও দায়ের করে। পুলিশকে নির্যাতিতা জানিয়েছেন, বিয়ের ৩ বছর পর থেকেই তাঁকে এই কাজ করার জন্য চাপ দিতেন অভিযুক্ত। রাজি না হওয়ায় মারধরও চলত অনবরত। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: