'মাতাল মা' নেশায় ডুবে! খিদের জ্বালায় কাঁদতে কাঁদতে মৃত্যু শিশুর

'মাতাল মা' নেশায় ডুবে! খিদের জ্বালায় কাঁদতে কাঁদতে মৃত্যু শিশুর

সদ্যোজাতের মৃত্যু

বাচ্চার কান্না টের পেল না মাতাল মা!

  • Share this:

    #ধমতারি: ছত্তিশগড়ের ধমতারিতে সদ্যোজাতের মৃত্যুর কারণ হল তার মা! মা নেশায় আসক্ত৷ দেড় মাসের শিশুকে স্তন্যপান করাতে ভুলেই গেলেন তিনি। কাঁদতে কাঁদতে শেষ পর্যন্ত মৃত্যুই হল নিষ্পাপ শিশুর৷ সারা রাত দুধের জন্য কাঁদতে কাঁদতে শেষ পর্যন্ত তার মৃত্যু হয়। মেয়ের মৃত্যুও টের পাননি মাতাল মা! সকালে ঘুম থেকে উঠে আবার নেশায় ঘুমিয়ে পড়েন তিনি। পরে প্রতিবেশীদের সন্দেহ হয়৷ কারণ বাচ্চার কান্না পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়৷ তখনই তারা ওই মহিলার বাড়ি আসেন৷ এসে দেখে যে মা নেশায় আচ্ছন্ন এবং পাশে পড়ে নিথর শিশুর দেহ৷ তখন তারাই পুলিশে খবর দেন৷ ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ৷ প্রথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে যে, খিদের জ্বালা সহ্য করতে না পেরে শিশুর মৃত্যু হয়েছে৷ তবে অন্য আরও বিষয়ও তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

    ঘটনাটি ধামতারীর সুন্দরগঞ্জ ওয়ার্ডের। জানা গিয়েছে যে, মদ্যপ মহিলার নাম রাজমিত কৌর। তার স্বামী হারমিত পেশায় মোটর মেকানিক। সম্প্রতি তাদের সন্তানের জন্ম হয়৷ স্থানীয়রা জানান যে, রাজমিৎ কৌর দিনরাত মদ্য পান করেন। তিনি সবসময় মাতালই থাকেন। তার স্বামী কোনও কাজে শহরে বাইরে গিয়েছিলেন। শুক্রবার সন্ধে থেকে রাজমিত অতিরিক্ত পান করেন। কখন অজ্ঞান হয়ে যান তিনি, নিজেও মনে নেই৷ এই সময়, তার দেড় মাসের কন্যা কাছাকাছি ঘুমিয়ে ছিল।

    আরও পড়ুন Viral: হাঁসের সঙ্গে খেলছে সিংহ! ভাইরাল ভিডিও দেখে চোখ কপালে তুলছে দুনিয়া

    মাতাল হয়ে যাওয়ায় রাজমিতের শিশুর প্রতি কোনও ধ্যান ছিল না৷ শিশুটি সারা রাত কাঁদতে থাকলেও,মায়ের কোনও পাত্তা ছিল না। মাতাল মা বুঝতেই পারেননি কখন মেয়ের খিদে পেয়েছে৷ জানা গিয়েছে, সকালে ঘুম থেকে উঠেও রাজমিত বুঝতে পারেননি কী ঘটেছে। এমনকি সন্তানের খিদের জ্বালায় কান্নার আওয়াজ পেয়েও সে আবার ঘুমিয়ে পড়ে৷ তারপর যখন প্রতিবেশীরা তাদের বাড়িতে পৌঁছলে, গোটা ঘটনাটি সামনে আসে৷ ততক্ষণে শিশুর মৃত্যু হয়৷

    এই হৃদয় বিদারক ঘটনায় ধামতারীর সুন্দরগঞ্জ এলাকার মানুষ হতবাক। বিশেষত মায়ের এধরণের আচরনে সকলে খুবই বিরক্ত৷ পুলিশ জানিয়েছে যে খবর পেয়ে মহিলার বাড়িতে পৌঁছলে, ছোট্ট মেয়ের দেহ পড়ে থাকতে দেখেন তারা৷ অন্যদিকে মা অজ্ঞান হয়ে পড়ে ছিলেন রাজমিত। পুলিশ জানিয়েছে, মাদকের কারণে ওই মহিলা কথা বলতেও পারছিলেন না। পরে মহিলার স্বামী হরমিত যখন বাড়িতে পৌঁছয়, তখনও রাজমিতের নেশা সম্পূর্ণ কাটেনি৷

    Published by:Pooja Basu
    First published:

    লেটেস্ট খবর