corona virus btn
corona virus btn
Loading

এক খুন ঢাকতে ৯ খুন! পরকীয়া সম্পর্কের জেরে ভয়ঙ্কর পরিণতি বাংলার ৯ পরিযায়ী শ্রমিকের

এক খুন ঢাকতে ৯ খুন! পরকীয়া সম্পর্কের জেরে ভয়ঙ্কর পরিণতি বাংলার ৯ পরিযায়ী শ্রমিকের
প্রতীকী ছবি

প্রথমে লকডাউনের মধ্যে পরিযায়ী শ্রমিকদের এভাবে মৃত্যুর ঘটনাকে আর্থিক অনটনে আত্মহত্যা ভেবেছিল প্রশাসন । কিন্তু তথ্যপ্রমাণ খতিয়ে দেখে এবং অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তা যে ঠাণ্ডা মাথার খুন, তা নিশ্চিত করেছে পুলিশ ।

  • Share this:

#ওয়াড়াঙ্গাল: প্রথমে কড়া ডোজের ঘুমের ওষুধ খাইয়ে , পরে মৃত্যু নিশ্চিত করতে একে একে ন'জনের দেহ ছুড়ে ফেলা হয় কুয়োয় । নৃশংস গণহত্যার ঘটনাটি তেলেঙ্গানার ওয়াড়াঙ্গাল জেলার । যদিও প্রথমে লকডাউনের মধ্যে পরিযায়ী শ্রমিকদের এভাবে মৃত্যুর ঘটনাকে আর্থিক অনটনে  আত্মহত্যা ভেবেছিল প্রশাসন । কিন্তু তথ্যপ্রমাণ খতিয়ে দেখে এবং অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তা যে ঠাণ্ডা মাথার খুন, তা নিশ্চিত করেছে পুলিশ । তেলেঙ্গানার ওয়ারাঙ্গালের এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে দেশজুড়ে । ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । যে গ্রামে ওই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে তার নাম গিসুগোন্ডা মণ্ডল ।

গত সপ্তাহে ৯ জনকে খুন করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় বিহারের বাসিন্দা  সঞ্জয় কুমার যাদব (২৪) নামে এক যুবককে । তাঁর বিরুদ্ধে একই পরিবারের ছ'জন , সঙ্গে আরও তিনজন , মোট ৯ জনকে খুনের অভিযোগ ওঠে । জানা গিয়েছে , পরিযায়ী শ্রমিক মাকসুদ আদতে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দ । তিনি কর্মসূত্রে তাঁর স্ত্রী এবং সন্তানদের নিয়ে ওয়ারেঙ্গেলে থাকতেন । গত সপ্তাহে মাকসুদের (৪৮) পরিবারের সকলকে খুন করে অভিযুক্ত। একইসঙ্গে বিহারের বাসিন্দা আরও ২ জন ও ত্রিপুরার একজনকেও খুন করে সে । শুধু খুন নয় প্রমাণ লোপাটের জন্য ওই যুবক মৃতদেহগুলি একটি কুয়োর মধ্যে ফেলে দেয় । সেই কুয়ো থেকে মৃতদেহগুলি উদ্ধার করে পুলিশ ।

পুলিশ সূত্রের জানা গিয়েছে , গত মার্চে একটি খুনের ঘটনা ঘটে। সেই ঘটনা জানাজানি হতেই তেলেঙ্গানায় এই গণহত্যার ঘটনা । জানা গিয়েছে, ৬ বছর আগে বিহার থেকে এসে ওয়ারঙ্গলের ওই ব্যাগ ফ্যাক্টারিতে কাজে যোগ দেয় সঞ্জয় । সেখানেই   কাজ করতেন বাংলার বাসিন্দা বিবাহ-বিচ্ছিন্না রফিকা । সঞ্জয়ের সঙ্গে ধীরে ধীরে তাঁর ঘনিষ্ঠতা তৈরি হয় । এমনকি দু'জনে লিভ-ইন সম্পর্কে লিপ্ত হন । কিন্তু, কোনও কারণে তাঁদের মধ্যে অশান্তি শুরু হয়েছিল বলেই প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছে পুলিশ । এরপর চলতি বছরের মার্চে প্রেমিকা রফিকাকে চলন্ত ট্রেন থেকে ফেলে দিয়ে খুন করে সঞ্জয় । আর রফিকার খুনকে ধামাচাপা দিতেই আরও ৯  জনকে খুন করে সে ।

ওয়াড়াঙ্গাল পুলিশ কমিশনার ভি রবীন্দর সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, গত ৬ মার্চ প্রেমিকাকে খুন করে সঞ্জয়। খুনের ঘটনা কোনওভাবে জানতে পেরে গিয়েছিলেন মাকসুদের স্ত্রী । সঞ্জয় জেরার জানিয়েছে, ওই মহিলা বার বার খুনের ঘটনা পুলিশকে জানিয়ে দেবেন বলে হুমকি দিতেন । আর এতেই দিন দিন তার ক্ষোভ জমতে শুরু করে। তাররেই ঠাণ্ডা মাথায় খুনের পরিকল্পনা করে সে ।  এরপর গত সপ্তাহে একই পরিবারের ৬ জন এবং আরও দুজনের দেহ উদ্ধার হয় একটি কুয়ো থেকে। এর মধ্যে তিন শিশু রয়েছে। জেরার নিজের দোষ  কবুল করেছে সঞ্জয় ।

Published by: Shubhagata Dey
First published: May 26, 2020, 2:36 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर