কেলেঙ্কারির একশেষ, হাতে পিস্তল নিয়ে বিয়েবাড়িতে ব্যাপক নাচ, তারপর...

হায় হায় , এ কী কাণ্ড...

হায় হায় , এ কী কাণ্ড...

  • Share this:

    #জলগাঁও: বিয়ের সিজন বলে কথা, তা কী হয়েছে দেশে করোনা ভাইরাসের দু‘টো ডোজ পেল কি না পেল, দ্বিতীয় ওয়েভে অর্ধেক লোক সাফ হেয়ে গেল, তাও এটা স্বাভাবিকভাবে ভেবে নেওয়া উচিত নয় যে বিয়ের অনুষ্ঠানে লোকে নিয়ম মানবে৷ মহারাষ্ট্রের  (Maharastra) জলগাঁও (Jalgaon) তে বিয়ের অনুষ্ঠান সামাজিক দূরত্ববিধি, মাস্কের ব্যবহারকে শিকেয় উঠিয়ে চলল জমিয়ে নাচ-গান৷  শুধু যদি এটার জন্যেই রেগে কাঁই হন তাহলে বিস্তর ভুল করবেন৷ আরও দীর্ঘ ও নক্কারজনক বিয়েতে ফূর্তির তালিকা৷

    বিয়ে বাড়ির নাচের অনুষ্ঠানে যাঁরা নাচছিলেন তাঁদের কারোর মুখেই কোনও মাস্ক নেই, উপরন্তু একজন সাদা রঙের প্যান্ট ও শার্ট পরা এক ব্যক্তি হাতে বন্দুক (Pistol) নিয়ে দেদার নৃত্যে ব্যস্ত৷

    বিভিন্ন  সময়ে নাচের মুভমেন্টে কখনও ওপরে , কখনও নিচে যাচ্ছে হাতে ধরা সেই  Pistol৷ দেখে নিন  সেই নক্কারজনক নাচের ভিডিও৷

    সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরেই পুলিশ বন্দুক হাতে ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে৷ স্থানীয় পুলিশ অভিযুক্ত ওই ব্যক্তিকে দ্রুত নিজেদের কাস্টডিতে নিয়ে নেয়৷ তদন্ত শুরু হয়েছে কেন ওই ব্যক্তি একটি বিয়ের সমারোহে হাতে খোলা পিস্তল নিয়ে নাচ করছিলেন৷

    শুধু ওই ব্যক্তিই নয়, একাধিক ব্যক্তি কী ভাবে সামাজিক দূরত্ববিধি শিকেয় তুলে দিয়ে এভাবে নাচতে নাচতে যাচ্ছিলেন তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷ এই ভিডিও-র ভিত্তিতেই কেস দায়ের করছে পুলিশ৷ এই মুহূর্তে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে দেশ বিপর্যস্ত৷ এই অবস্থায় যেখানে সংক্রমণ কমাতে বিভিন্ন প্রশাসন লকডাউন ডাকছে সেখানে এদের নাচগান দেখে থ পুলিশ৷

    যে ব্যক্তি হাত দুলিয়ে দুলিয়ে বন্দুক হাতে নাচছে তার নাম ইউনুস প্যাটেল৷ অপরাধীর বিরুদ্ধে  কঠিন দণ্ডবিধির ধারায় কেস দায়ের করাতে হয়েছে৷ তার বিরুদ্ধে অপরাধের মামলা দায়ের হয়েছে৷

    Published by:Debalina Datta
    First published: