আগুন দিলেই বালি থেকে সোনা! ৫০ লক্ষ টাকা দিয়ে 'ম্যাজিক বালি' কিনে প্রতারণার ফাঁদে ব্যবসায়ী

৫০ লক্ষ টাকার বদলে 'ম্যাজিক বালি' কিনে প্রতারণার ফাঁদে ব্যবসায়ী পড়লেন প্রতারণার ফাঁদে পড়লেন গয়না ব্যবসায়ী।

৫০ লক্ষ টাকার বদলে 'ম্যাজিক বালি' কিনে প্রতারণার ফাঁদে ব্যবসায়ী পড়লেন প্রতারণার ফাঁদে পড়লেন গয়না ব্যবসায়ী।

  • Share this:

    #পুণে: লোভে পাপ আর পাপে মৃত্যু, কথাতেই রয়েছে। এক্ষেত্রে মৃত্যু না ঘটলেও তাঁর চেয়ে কিছু কম নয়। সম্প্রতি এমনই এক ঘটনায় তাজ্জব হয়েছেন সকলে। লোভ করতে গিয়ে প্রতারণার কবলে পড়েছেন পুণের এক গহনা ব্যবসায়ী। বিশ্বাস করে ৫০ লক্ষ টাকার বদলে 'ম্যাজিক বালি' কিনেছিলেন ওই ব্যবসায়ী। আর তারপরে ফল না মিলতে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন ব্যাক্তি।

    ''গরম তাপ পেলেই নাকি বাংলার এই 'ম্যাজিক বালি' একেবারে সোনায় পরিণত হবে", এমনটাই দাবি করেছিল প্রতারক ওই ব্যাক্তির কাছে। আর সেই কথা বিশ্বাস করে নিয়ে ব্যাক্তি ওই প্রতারকের হাতে তুলে দেন ৫০ লক্ষ টাকা।

    পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই গয়না ব্যবসায়ী জানিয়েছেন প্রতারকের সঙ্গে তাঁর এক বছর ধরে আলাপ ছিল। হঠাৎ একদিন অভিযুক্ত তাঁর দোকানে যায়, এবং সেখান থেকেই তাঁদের মধ্যে বন্ধুত্ব গভীর হতে থাকে। ওই লোকটি ব্যবসায়ীর বাড়িতেও যেতেন, পরিবারের লোকের সঙ্গেও অভিযুক্তের পরিচয় ছিল।

    অভিযুক্ত তাঁকে ব্যাগে ভর্তি ৪ কেজি বালি দেয় এবং আশস্ত করে এক বছর পরে এই বালিতে আগুনে দিলে তা রুপান্তরিত হবে সোনায়। তার বদলে ব্যাবসায়ী তাঁকে নগদ এবং ২০ লক্ষ টাকা দেয়। অবশেষে যখন আগুনে দেওয়ার পর নিষ্ফল হলেন ব্যবসায়ী তখন তিনি বুঝতে পারেন ওই ব্যাক্তি তাঁকে ফাঁদে ফেলেছেন। তারপরেই তিনি পুলিশের কাছে রিপোর্ট করেন। মজার হলেও ঘটনাটি সত্য।

    জ্যোতিষশাস্ত্রে বিশ্বাস রয়েছে এরকম অনেকেই রয়েছেন। কিন্তু সবক্ষেত্রে যে তা ঠিক হয়না সেরকম ঘটনা প্রায়ই নজরে আসে। সম্প্রতি এমনই এক প্রতারণার কবলে পড়েছেন পুণে শহরের এক গয়না ব্যবসায়ী। বিশ্বাস করে ৪ কেজি ম্যাজিক বালি কিনেছিলেন তিনি এক ব্যাক্তির থেকে। উল্টে তাঁকে ৫০ লক্ষ টাকা দেন গয়না ব্যবসায়ী।

    পুলিশ এই বিষয়টির তদন্ত করছে তবে ওই প্রতারকের এখনও কোনও হদিস মেলেনি। অভিযুক্তকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ধারা ৪২০ (প্রতারণা ও অসাধুভাবে সম্পত্তি সরবরাহের জন্য প্ররোচিত করা), ৪০৬ (আস্থাভাজনে অপরাধমূলক লঙ্ঘন) এবং ৩৪ (সাধারণ অভিপ্রায় চালিয়ে একাধিক ব্যক্তি দ্বারা করা আইন) এর আওতায় ফেলা হয়েছে।

    Published by:Somosree Das
    First published: