• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • পরকীয়া প্রেমের সন্দেহে স্ত্রীর মুণ্ডু কেটে নিয়ে রাস্তায় ঘুরল স্বামী ! থানায় জমা দিল মুণ্ডু !

পরকীয়া প্রেমের সন্দেহে স্ত্রীর মুণ্ডু কেটে নিয়ে রাস্তায় ঘুরল স্বামী ! থানায় জমা দিল মুণ্ডু !

photo source collected

photo source collected

উত্তর প্রদেশের এই ভয়ঙ্কর ঘটনায় গোটা দেশ নড়ে-চড়ে বসেছে।

  • Share this:

    #উত্তরপ্রদেশ:  ভয়ঙ্কর ঘটনা। বউয়ের সঙ্গে ঝগরা। কথা কাটাকাটি। সামান্য ঝগরার জন্য কেউ কারও মুণ্ডু কেটে নিতে পারে ! হ্যাঁ এমন চমকে ওঠার মতোই ঘটনা ঘটেছে উত্তর প্রদেশের বান্দায়।

    স্বামী স্ত্রীর ছোট্ট সংসার। হঠাৎ করেই শুক্রবার সন্ধ্যে সাতটা নাগাদ কথা কাটাকাটি শুরু হয় তাঁদের মধ্যে। এর পরে সেই কথাকাটি বাড়তে থাকে। রাগের মাথায় ধারাল অস্ত্র দিয়ে বউয়ের গলা কেটে নেয় চিন্নার যাদব নামের ৩৬ বছরের ব্যক্তি। এর পর সেই কাটামুণ্ডু নিয়ে রাস্তা দিয়ে হেঁটে নেতানগর থানায় যায় ওই ব্যক্তি। কাটা মুণ্ডু পুলিশের কাছে জমা দিয়ে খুনের কথা স্বীকার করে নেয় সে। এর পর পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

    রাস্তা দিয়ে মুন্ডু হাতে হেঁটে আসার সময় তার ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়ে দেয় রাস্তায় উপস্থিত এক ব্যক্তি। এর পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয় এই ভয়ঙ্কর ভিডিও। ওই ব্যক্তিকে জেরা করে জানা গিয়েছে, সে সন্দেহ করত তার স্ত্রীয়ের পরকীয়া সম্পর্ক আছে। কিন্তু সে কোনও প্রমান পাইনি। কার সঙ্গে প্রেম ছিল তাও জানত না। শুধু মাত্র সন্দেহর বশেই নিজের স্ত্রীর মুণ্ডু কেটে নেয় ওই ব্যক্তি। এই ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটেছে উত্তপ্রদেশে। মানুষ যে কতটা ভয়ঙ্কর হতে পারে তা এই ঘটনা সামনে আসায় আর একবার প্রমানিত হল। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভয়ঙ্কর ভিডিও দেখে সকলেই ওই ব্যক্তির কঠিন শাস্তির আবেদন করেছে।

    তবে ওই ব্যক্তি নিজের এই জঘন্য অপরাধের জন্য বিন্দু মাত্র লজ্জিত নয়। সে বার বার দাবি করছে সে যা করেছে একদম ঠিক। এবং তার সন্দেহ তার বউয়ের পরকীয়া প্রেম ছিল। পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। মৃত মহিলার বাড়ির লোকেরাও ওই ব্যক্তির কঠিন শাস্তি চান। এর আগেও একবার এমন এক ঘটনা সামনে এসেছিল। এক ব্যক্তি নিজের জামাইয়ের মুণ্ডু কেটে নিয়ে রাস্তায় ঘুরেছিলেন। দিন দিন মানুষের মধ্যে অপরাধ প্রবণতা বেড়েই চলেছে। তবে উত্তর প্রদেশের এই ভয়ঙ্কর ঘটনায় গোটা দেশ নড়ে-চড়ে বসেছে।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: