corona virus btn
corona virus btn
Loading

ছ’মাস পর ফোন অন হতেই কড়েয়ার ব্রড স্ট্রিট খুনের কিনার করল পুলিশ !

ছ’মাস পর ফোন অন হতেই কড়েয়ার ব্রড স্ট্রিট খুনের কিনার করল পুলিশ !

অবশেষে কড়েয়া ব্রড স্ট্রিটের মূল অভিযুক্ত মুরশিদ শেখকে গ্রেফতার করল কলকাতা পুলিশ।

  • Share this:

#কলকাতা: গত বছর ৫ জুন কড়েয়ার ব্রড স্ট্রিটে খুন হন বৃদ্ধ বিশ্বজিৎ বসু। তদন্তের সবদিক খতিয়ে দেখা গেলেও গোয়েন্দাদের কাছে বৃদ্ধ বিশ্বজিৎ বসুর মোবাইল ছিল নিরুদ্দেশ।  বিভিন্ন সূত্র পেয়ে মোবাইল উদ্ধার করতে গেলেও ব্যর্থ হন গোয়েন্দারা। বুঝতে পারেন খুনের আসল রহস্য লুকিয়ে আছে মোবাইলে।

মোবাইল উদ্ধারের সঙ্গে চলে বিভিন্ন লোককে জিজ্ঞাসাবাদের পর্ব। পাশাপাশি মোবাইল নাগাল পেতে জোর দেন লালবাজারের গোয়েন্দারা।  তাতেই মিলল সাফল্য, প্রায় ছয়মাস পরে হঠাৎ একদিন জানা যায় মৃত বিশ্বজিৎ বসুর মোবাইল অন করা হয়েছে। তারপরেই শুরু মোবাইলের লোকেশন দেখা। প্রথমে এক ফেরিওয়ালার কাছ থেকে উদ্ধার হয় মোবাইলটি, জানাতে পারেন অন্যজনের থেকে সেটি কিনেছে ফেরিওয়ালা। সেই তথ্য নিয়ে অন্য ফেরিওয়ালাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে আরও এক ফেরিওয়ালার সন্ধান পান গোয়েন্দারা।

ছয়জন ফেরিওয়ালাকে লালবাজারে ডাকার পরেই  দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার বাসিন্দা মুরশিদ শেখের নাগাল পান গোয়েন্দারা ৷ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই সে জানায় লুঠের সময় বৃদ্ধ বিশ্বজিৎবসু বাধা দেবার জন্য খুন করা হয় বৃদ্ধকে।পরে ঘরের বিভিন্ন সামগ্রীর সঙ্গে মোবাইল  নিয়ে পালায় অভিযুক্ত। কিছুটা ভয় পেয়ে মোবাইল প্রথমে বিক্রি না করলেও পরে ফেরিওলাকে বিক্রি করে দেওয়া হয়।

গতবছরের ৫ জুন বুধবার রাত ১০টা ০৭ মিনিট থেকে ১০টা ৪০ মিনিটের মধ্যে খুন করা হয় বৃ্দ্ধকে। মৃতের ছোট মেয়ে  বিজয়িতা বাড়ি পৌঁছন ১০টা ৪০ মিনিট নাগাদ। তখন তিনি বাবাকে ফোন করেন। বিজয়িতার দাবি করেছিল ওই সময় কোনও অপরিচিত ব্যক্তি ফোনটা ধরেন যিনি হিন্দিভাষী। ফোনে থাকা ব্যক্তি দাবি করেন তিনি পার্ক সার্কাস এলাকায় ওই ফোনটি কুড়িয়ে পেয়েছেন। তারপর বার বার ফোন করার পরও ওই ব্যক্তি আর ফোন তোলেননি। সেই তথ্য অনুযায়ী এর মধ্যেই আততায়ীরা হত্যা করে বিশ্বজিৎ বাবুকে। অন্যদিকে, চেয়ারে বসা অবস্থায় বৃদ্ধের দেহের পাশে একটি রক্তমাখা ছুরি পাওয়া গিয়েছিল। সাধারণ সবজি এবং ফল কাটা ছুরি। প্রাথমিকভাবে তদন্তকারীদের ধারণা হয়েছিল ওই ছুরি দিয়েই বৃদ্ধের গলার নলি কাটা হয়েছিল। অনেক কিছু ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হলেও মোবাইল নাগাল পেতে বারবার ব্যার্থ হন তদন্তকারী। ছয়মাস পরে ফোন অন হতেই খুনের কিনারা করল পুলিশ। ৩ মার্চ পর্যন্ত অভিযুক্তের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ আলিপুর আদালতের ৷

Susovan Bhattacharjee

First published: February 22, 2020, 8:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर