তিন নম্বর বউকে তিন মাসের মধ্যেই মেরে ফেলল স্বামী, তারপর...

Photo- Representative

বিয়ের তিন মাসের মধ্যে স্ত্রীকে গলা কেটে খুন, তদন্তে নেমে উঠে আসছে চাঞ্চল্যকর ও নাটকীয় তথ্য৷

  • Share this:

#মালদহ: বিয়ের তিন মাসের মধ্যে স্বামীর হাতে খুন স্ত্রী। গলার নলি কাটা অবস্থায় শোওয়ার ঘর থেকে উদ্ধার রক্তাক্ত দেহ। মালদহ থানার যাত্রাডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের হালনা মহম্মদপুর গ্রামের ঘটনা। মৃতের স্বামী রুকসাদ আলিকে গ্রেফতার করেছে মালদহ থানার পুলিশ। নির্মম হত্যাকাণ্ডের ঘটনার তদন্ত দাবি করেছেন মৃতের পরিবার থেকে প্রতিবেশীরা।

জানা গেছে, শ্বশুরবাড়িতে খুন হওয়া মহিলার নাম রুপালি বিবি(২৫)। মালদহের গাজলের বৈরগাছির বাসিন্দা রুপালি। মাস তিনেক আগে সম্বন্ধ করে বিয়ে হয় যাত্রাডাঙ্গার বাসিন্দা রুকসাদের সঙ্গে। মৃতের মা সাহেলা বিবির দাবি, বিয়ের সময় জামাইয়ের দাবি মেনে দেড় লক্ষ টাকা পণ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু, এরপরও মাঝেমধ্যেই আরও বাড়তি টাকা দাবি করছিল জামাই রুকসাদ। বিষয়টি আগেই জানিয়েছিল মেয়ে। কিন্তু, পারিবারিক আর্থিক সমস্যার কারণে তাঁরা জামাইয়ের চাহিদামত আরও টাকা দিতে পারেননি। তাই মেয়েকে কষ্ট করে মানিয়ে নেওয়ার জন্য বলা হয়েছিল। কিন্তু, তার আগেই জামাইয়ের আক্রোশের শিকার হয় মেয়ে। সকালে পুলিশ সূত্রে মেয়ের খুনের খবর পান তাঁরা।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন মাঝেমধ্যেই স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া বিবাদের ঘটনা জানতে পারতেন তাঁরা। দুজনের মধ্যে দাম্পত্য কলহ লেগে থাকত। এদিন শোওয়ার ঘরের রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায় রুপালির দেহ।খুনের ঘটনার পিছনে মূলত পণের দাবির বিষয় উঠে আসলেও মৃতের শ্বশুরবাড়ি এক ঘনিষ্ঠ আত্মীয়ের সঙ্গে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগ করেছেন স্থানীয়দের একাংশ। এ নিয়ে প্রতিবাদ করার জেরেও খুন হয়ে থাকতে পারেন মহিলা বলে আশঙ্কা স্থানীয়দের একাংশের। মালদহ থানার পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত রুকসাদের এর আগেও তিনটে বিয়ে রয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে। খুনের প্রকৃত কারণ কী তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত চলছে। অভিযুক্তের আগের স্ত্রীদের বিষয়েও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রয়োজনে হেফাজতে নেওয়া হবে। খুনের পিছনে পণ ছাড়া বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে কোন পারিবারিক বিবাদ রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Sebak DebSarma

Published by:Debalina Datta
First published: