Crime: স্যালাড কেটে পরিবেশনে দেরি, স্ত্রীকে কুপিয়ে খুন গুণধর স্বামীর!

স্যালাড কেটে পরিবেশনে দেরি, স্ত্রীকে কুপিয়ে খুন গুণধর স্বামীর!

চরম রাগের চোটে নিজের স্ত্রীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাল গুণধর স্বামী। ছাড়ল না নিজের ছেলেকেও।

  • Share this:

    #লখনউ: রাতের খাবার খেতে বসেছেন স্বামী ও ছেলে। খাবার পরিবেশ করছেন স্ত্রী। স্যালাড কাটতে নির্দেশ দিয়েছেন স্বামী। সেটা কেটে পরিবেশন করতে খানিক দেরি হয়ে গিয়েছে। আর তাতেই চরম রাগের চোটে নিজের স্ত্রীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাল গুণধর স্বামী। ছাড়ল না নিজের ছেলেকেও। তাকেও কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে পলাতক স্বামী।

    ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের সামলিতে। সোমবার সামলির গোগাওয়ান জালালপুরের বাড়িতে স্ত্রী ও ছেলেকে কোপায় স্বামী। স্ত্রী সুদেশকে প্রাণে মারার অভিযোগে স্বামী ৪৭ বছরের মুরলির বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, রোজকারের মতো সোমবার রাতেও খাবার সময় স্যালাড কেটে আনার নির্দেশ দিয়েছিল মুরলি। স্ত্রী অন্য কাজে ব্যস্ত থাকায়, খানিক দেরিতে স্যালাড কেটে নিয়ে যান তিনি। তার পরেই তা নিয়ে দু'জনের মধ্যে অশান্তি শুরু হয়ে যায়।

    পরিস্থিতি এমন চরম আকার ধারণ করে যে, হাতের সামনে থাকা মাটির কাজের খুরপি দিয়ে স্ত্রীকে বারংবার কোপাতে শুরু করে মুরলি। স্ত্রীকে মেরেই ফেলেছে সে। ছেলে বাধা দিতে গেলে, তাকেও গভীর ভাবে আঘাত করে মুরলি। ২০ বছরের ছেলে গুরুতর জখম অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি।

    প্রতিবেশীরা চিৎকার শুনতে পেয়ে মুরলির বাড়িতে যান। সেখানে গিয়ে মাটিতে লুটিয়ে থাকতে দেখেন মা ও ছেলেকে। রক্তে ভেসে যাচ্ছিল গোটা বাড়ি। সেখান থেকে মা ও ছেলেকে তাঁরাই হাসপাতােল নিয়ে যান। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছে। মহিলাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা। ছেলেটি হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছে। স্বামী ঘটনার পর থেকেই পলাতক। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: