• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • Gariahat Twin Murder Update: কাঁকুলিয়া জোড়া খুন কাণ্ডে প্রাক্তন পরিচারিকার যোগ? ডায়মন্ড হারবারে আটক মহিলা

Gariahat Twin Murder Update: কাঁকুলিয়া জোড়া খুন কাণ্ডে প্রাক্তন পরিচারিকার যোগ? ডায়মন্ড হারবারে আটক মহিলা

কাকুলিয়া রোডের এই বাড়িতেই খুন হন সুবীর চাকি এবং তাঁর গাড়ির চালক৷

কাকুলিয়া রোডের এই বাড়িতেই খুন হন সুবীর চাকি এবং তাঁর গাড়ির চালক৷

গত রবিবার গড়িয়াহাটের কাকুলিয়া রোডে নিজের বাড়িতেই খুন হন কর্পোরেট কর্তা সুবীর চাকি এবং তাঁর গাড়ির চালক রবীন মণ্ডল (Gariahat Twin Murder Update)৷

  • Share this:

    #ডায়মন্ড হারবার: কাঁকুলিয়ায় জোড়া খুন কাণ্ডে ডায়মন্ড হারবার থেকে এক মহিলাকে গ্রেফতার করল পুলিশ (Gariahat Twin Murder Update)৷  ধৃত মহিলা কাঁকুলিয়ার ওই বাড়িতে অতীতে পরিচারিকার কাজ করত বলে পুলিশ সূত্রে খবর৷ তাঁর ভাই এবং ছেলেকেও আটক করা হয়৷ এ দিন ডায়মন্ড হারবারের (Diamond Harbour) কপাটহাট এলাকা থেকে ওই মহিলাকে আটক করা হয়৷ অভিযুক্তকে আটক করার পর কলকাতা পুলিশের হোমিসাইড শাখার হাতে তুলে দিয়েছে ডায়মন্ড হারবার থানার পুলিশ৷

    আরও পড়ুন: পেশাদার খুনি নিয়ে এসেছিল পরিচিত কেউ? গড়িয়াহাটে জোড়া খুনের তদন্তে থ্রি ডি প্রযুক্তি

    গত রবিবার গড়িয়াহাটের কাকুলিয়া রোডে নিজের বাড়িতেই খুন হন কর্পোরেট কর্তা সুবীর চাকি এবং তাঁর গাড়ির চালক রবীন মণ্ডল৷ ঘটনার তদন্তে নামে কলকাতা পুলিশের হোমিসাইড শাখা৷ প্রথম থেকেই পুলিশের অনুমান ছিল, খুনের পিছনে পরিচিত কেউ জড়িত৷

    কাঁকুলিয়ায় জোড়া খুনের তদন্তে মঙ্গলবার ঘটনাস্থলে পুলিশ কুকুর নিয়ে যান তদন্তকারীরা৷ বাড়ি থেকে বেরিয়ে বালিগঞ্জ স্টেশনে চলে গিয়েছিল পুলিশ কুকুর৷ তার থেকেই গোয়েন্দাদের অনুমান হয়, সম্ভবত ট্রেনে করেই ফিরে গিয়েছে আততায়ীরা৷ সেই সূত্রেই এ দিন ডায়মন্ড হারবারে পৌঁছন  তদন্তকারীরা৷ সেখান থেকেই অভিযুক্ত ওই মহিলা এবং তার ভাই ও ছেলেকে প্রথমে আটক করে জেরা করা হয়৷  পরে ওই মহিলাকে কলকাতা পুলিশের হাতে  তুলে দেওয়া হয়৷

    ধৃতদের সঙ্গে এই খুনের কী যোগ, তা অবশ্য এখনও স্পষ্ট করেনি পুলিশ৷ জানা গিয়েছে, কয়েক বছর আগে পর্যন্ত কাঁকুলিয়া রোডের ওই বাড়িতেই থাকতেন সুবীরবাবুর পরিবার৷ সেই সময় ওই বাড়িতেই পরিচারিকার কাজ করত অভিযুক্ত৷

    পুলিশ সূত্রে খবর, আটক মহিলার বিরুদ্ধে এর আগেও অপরাধের অভিযোগ রয়েছে৷ ২০২০ সালে ভাই ও ছেলের সঙ্গে মিলে নিজের স্বামীকেই হাত পা বেঁধে খুনের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ৷ তখন তাকে গ্রেফতারও করা হয়েছিল৷ ফলে অভিযুক্তের সঙ্গে কাকুলিয়ায় জোড়া হত্যাকাণ্ডের যোগাযোগ রয়েছে বলেই দৃঢ় বিশ্বাস গোয়েন্দাদের৷

    Anisuddin Mollah
    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: