• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • জিনিস নয়, ‘ডেলিভার’ হল শুধু ছবি ! অভিনব প্রতারণায় বিস্মিত আদালত

জিনিস নয়, ‘ডেলিভার’ হল শুধু ছবি ! অভিনব প্রতারণায় বিস্মিত আদালত

Representational Image

Representational Image

ছবি দেখিয়ে লক্ষাধিক টাকার প্রতারণা ৷ বিস্মিত আদালত ৷

  • Share this:

#কলকাতা: লরির ছবি এল গুজরাত থেকে ৷ জিনিস নয়। আহমেদাবাদের ব্যবসায়ীর কাছ থেকে আসার কথা ছিল ১৬০৯০ কেজি অ্যালুমিনিয়াম ছাঁট।  যার মূল্য ১৬.৫১ লক্ষ টাকা। হাওড়ার আমতা রোডের নয়াচকে ছিল ডেলিভারির কথা। মাল লোড হয়ে গিয়েছে। অ্যালুমিনিয়াম ছাঁট ভর্তি বোঝাই লরির ছবি এসে পৌঁছলো রামসুন্দর বাগারিয়ার মোবাইলে। ধর্মকাঁটায় অ্যালুমিনিয়াম ছাঁট ওজনের রিসিভ কপিও পাঠিয়ে দেওয়া হয় সম্ভবত প্রতারণাকে নিশ্চিত করতে। ছবি দেখে আর দেরি করেননি ক্যামাক স্ট্রিটের ব্যবসায়ী৷ বরাতের পুরো টাকা মিটিয়ে দেন তিনি। দু’দফায় পুরো টাকা নেট ব্যাঙ্কিং-এ দিয়ে দেয় বাগারিয়ার কোম্পানি।

এদিকে সময় পেরিয়ে গেলেও মাল এসে পৌঁছল না।  কিছুতেই বুঝে উঠতে পারছিলেন না রামসুন্দর বাবু। আসলে প্রতারণার তখনও কিছু সিন বাকি ছিল। তা সম্পূর্ণ হতেই পরিষ্কার হয়ে যায় প্রতারণার ফাঁদে পড়েছেন তিনি।বরাত নেওয়া সংস্থার মালিক অনিল শ্রীবাস্তবকে ফোন করেন রামসুন্দর বাবু। একবার নয় একাধিকবার। সুরচড়িয়ে ওপার(গুজরাত) থেকে জানানো হয়,  দুটো চেকে টাকা ফিরিয়ে দেওয়া হবে। ৮অগাস্ট ২০১৯ তারিখের দুটি চেকে পাঠানো হয় ৯.৫১ লক্ষ টাকা এবং ৭ লক্ষ টাকা।

আহমেদাবাদের শাহিবাগ শাখার অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের দুটি চেক কিছুদিন যেতেই অপর্যাপ্ত ফান্ডের কারণে বাউন্স করে।  ক্যামাক স্ট্রিটে অফিস হওয়ায়,  পুরো ঘটনা জানিয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয় শেক্সপীয়ার সরণি থানায়। পুলিশ কোনো এফআইআর রুজু না করায় শেষমেষ ব্যাঙ্কশাল আদালতে মামলা ঠোকেন রামসুন্দর বাগারিয়া। তাঁর আইনজীবী ইয়াসিন রহমানের বলেন, " ছবি দেখিয়ে প্রতারণার অভিযোগে বিস্মিত আদালতও।  পুলিশ কী পদক্ষেপ করেছে তা নিয়ে রিপোর্ট তলব করেছেন চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট। ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে রিপোর্ট দিতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।  ব্যবসায় গুজরাটের  সুনাম বরাবর। অথচ গুজরাটের মাটিকে ব্যবহার করে এমন ফন্দিবাজের প্রতারণায় তাজ্জব কলকাতার বড়বাজারের ব্যাবসায়িক মহল।

ARNAB HAZRA

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: