• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • HEARTLESS GRANDMOTHER BURNS CHILD WITH HOT CANDLE WAX PUNCHES HIM CAUGHT ON CAMERA GOES VIRAL SDG

একরত্তির শরীরে জ্বলন্ত মোম ফেলছে ঠাকুমা! নাগাড়ে কিল-চড়-ঘুষি, নারকীয় দৃশ্য বর্ণনা করা কঠিন

সংগৃহীত ছবি

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি বাড়ির বেশ কয়েকজন মহিলা সদস্য মিলে ছোট্ট এক শিশুর ওপর বর্বরোচিত অত্যাচার করছে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: মা ব্যস্ত সদ্যোজাত সন্তানের পরিচর্যায়। তাই খানিক বড় অর্থাৎ দু'বছর বয়সী বড় ছেলে শাশুড়ির কাছেই থাকে। বাড়ির সকলেই নাকি দেখাশুনা করে তাকে। এমনতাই ছিল বিশ্বাস। কিন্তু, যে ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়, তা দেখে আপনি স্থির থাকতে পারবেন না। মানুষ যে এতটাও নৃশংস হতে পারে, তা এই ভিডিও দেখলে হাড়ে হাড়ে বুঝতে পারবেন যে কেউ।

    সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি বাড়ির বেশ কয়েকজন মহিলা সদস্য মিলে ছোট্ট এক শিশুর ওপর বর্বরোচিত  অত্যাচার করছে। জ্বলন্ত মোম ফেলা হচ্ছে তার সারা শরীরের ওপর। যন্ত্রণায় কাতর হয়ে আর্ত চিৎকার জুড়েছে শিশুটি। কিন্তু কারও তাতে কোনও ভ্রুক্ষেপ নেই। বরং, তাকে আরও কষ্ট দিতে সেই একই কাজ করে চলেছেন ঠাকুমা। এখানেই শেষ নয়,  মোমবাতির আগুন তার গাইয়ে চেপেই নিভিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এরপর ঠাকুমা-সহ আরও দু-একজন মহিলা শিশুটিকে এলোপাথাড়ি মারধর করছে, সেই ছবি ভাইরাল হয়েছে।

    ভিডিওতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, ঠাকুমা শক্ত করে নাতির দুই হাত ধরেছেন। অন্য দুই মহিলা তাঁকে জোর করে মাটিতে বসাচ্ছে। পাশেই বসে রয়েছেন পরিবারের আরও এক সদস্য। সেখানে বসে বসেই বারে বারে শিশুটির হাতের ওপরে জ্বলন্ত মোম ফেলা হচ্ছে। মোম নিভে যেতেই একরত্তির পেট, পাকস্থলী, পিঠে সজোরে কিল মারা হচ্ছে। এক নয় একাধিক বার এই ঘটনার ছবি ক্যামেরাবন্দি হয়েছে। যন্ত্রণায় ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদছে সে। কান্না যাতে বাইরে না যায়, তাই ঠাকুমার বুদ্ধিতেই মুখে গুঁজে দেওয়া হচ্ছে পুটুলিপাকানো ন্যাকড়া।

    সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ছবিটি নজরে আসতেই সরব হয়েছেন জাতীয় মহিলা কমিশনের অধিকর্তা রেখা শর্মা। ট্যুইটারে ক্রিকেটার সুমিত কুমারের পোস্ট করা ট্যুইটে তিনি ঘটনার বিষয়ে বিশদ জানতে চেয়েছেন। পাশাপাশি, ঘটনাটি কোথায় ঘটছে, সেটা নিয়েও জানতে চেয়েছেন তিনি। তবে ঘটনাটি কোথায় ঘটেছে বা থাকুমা-সহ কোনও অভিযুক্ত গ্রেফতার হয়েছেন কিনা, তা এখনও জানা যায়নি। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: