• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • EMPLOYER PUMPS AIR INTO LABOURER RECTUM OVER WAGE DISPUTE DIES AFTER THAT PBD

মলদ্বারে 'পাম্প' করে ঢোকানো হল হাওয়া! চরম অত্যাচারে মৃত্যু শ্রমিকের

পরিবারকে জানানো হয় যে, ধাকাড় গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় ভুগছিলেন৷ যদিও ৪৮ ঘণ্টা পর জ্ঞান ফেরে তাঁর৷ এবং পরিবারকে পুরো ঘটনাটি জানান তিনি৷

পরিবারকে জানানো হয় যে, ধাকাড় গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় ভুগছিলেন৷ যদিও ৪৮ ঘণ্টা পর জ্ঞান ফেরে তাঁর৷ এবং পরিবারকে পুরো ঘটনাটি জানান তিনি৷

  • Share this:

    #ভোপাল: অমানবিক অত্যাচার! কাজ করে তার পারিশ্রমিক চাইতে গিয়ে নারকীয় যন্ত্রণার মধ্যে পড়তে হল শ্রমিককে৷ যার জেরে মৃত্যু হল তার৷ ঘটনা মধ্যপ্রদেশের শিবপুরি জেলার গাজিগাড ধোরিয়া গ্রামের৷ শ্রমিকের নাম পরমানন্দ ধাকাড়৷ পাথর ভাঙার কাজ করতেন তিনি৷ মাস খানেক আগে যে অত্যাচারের মুখে পড়েন পরমানন্দ, তাতে যুক্ত ছিল তার মালিক এবং কারখানার আরও ৪ শ্রমিকও৷ এমনই জানা গিয়েছে৷

    ৮ নভেম্বর ধাকাড় মালিকের কাছে পারিশ্রমিক চাইতে যান তিনি৷ টাকা না দিয়ে চূড়ান্ত অপমান করে মালিক৷ তারপর কথা কাটাকাটি শুরু হওয়ায় ধাকাড়ের মলদ্বারে পাম্প দিয়ে হাওয়া ঢুকিয়ে দেওয়া হয়৷ এমনই অভিযোগ৷ মালিকের সঙ্গে এই কাজে যুক্ত হয় কারখানার আরও ৪ জন৷ সকলেই ধারাড়ের ওপর জোর খাটিয়ে এমন ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটানো হয়৷ মূলত শ্রমিকের মুখ বন্ধ করতে এমন অত্যাচার চলে তার ওপর৷ তবে এই ঘটনায় খুবই অসুস্থ হন ধাকাড়৷

    এরপর থেকে তার অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে৷ সেই দেখে গোয়ালিওরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়৷ যদিও পরিবারের থেকে বিষয়টি গোপন করা হয়েছিল৷ তারা কিছুই জানতে পারেননি৷ বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক কোনও সাহায্য করতে না পারায়, জেলার হাসপাতালে তাকে স্থানান্তরিত করতে হয়৷ এরপর খবর দেওয়া হয় পরিবারকে৷

    পরিবারকে জানানো হয় যে, ধাকাড় গ্যাস্ট্রিকের সমস্যায় ভুগছিলেন৷ যদিও ৪৮ ঘণ্টা পর জ্ঞান ফেরে তাঁর৷ এবং পরিবারকে পুরো ঘটনাটি জানান ৷ তার ওপর অত্যাচারের ঘটনাটি পরিবারকে জানান তিনি৷ সকলে চমকে ওঠে এই খবর শুনে৷ থানায় অভিযোগ জানান তাঁরা৷ কারখানার মালিক রাজেশ রাইয়ের নামে অভিযোগ জানানো হয়৷ এছাড়াও রবি, পিন্টু এবং পাপ্পু খানের নামেও অভিযোগ করা হয়েছে৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: