ক্রাইম

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কলকাতায় মাদক জাল ছড়াচ্ছে রাতপরীরা ! নজরে ক্রিসমাস-নিউ ইয়ার পার্টি

কলকাতায় মাদক জাল ছড়াচ্ছে রাতপরীরা ! নজরে ক্রিসমাস-নিউ ইয়ার পার্টি

শহরে বাড়ছে সিনথেটিক ড্রাগসের চাহিদা ৷

  • Share this:

অর্পিতা হাজরা 

#কলকাতা: হাতে গুনে অপেক্ষা আর  মাত্র কয়েকদিন ৷ বড়দিন উপলক্ষে গোটা শহর সেজে উঠছে ৷ আর তার সঙ্গেই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে শহরে সিনথেটিক  ড্রাগসের চাহিদা ৷ কলেজ পড়ুয়া থেকে ব্যবসায়ী- শিল্পপতি সকলেই চুর  মাদকের নেশায় ৷ নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর গোয়েন্দাদের দাবি,  নাইট  ক্লাব-বারগুলিতে রাতপরী বা এসকর্ট গার্লসদের মাধ্যমে  মাদকের জাল বিস্তার করছে মাদক কারবারিরা ৷

প্রাইভেট পার্টি থেকে শুরু করে সবরকম পার্টিতেই রাতপরীদের  হাতছানিতে নেশায় চুর  হচ্ছে  টিনেজার  থেকে  ব্যবসায়ী- শিল্পপতি  সকলেই ৷ নারকোটিকস  গোয়েন্দাদের দাবি, বর্তমানে সিনথেটিক  ড্রাগসের চাহিদা ক্রমেই  বাড়ছে শহরে | এমডিএমএ , এলএসডি ট্যাবলেট, ইয়াবা  ট্যাবলেট-সহ  ম্যাজিক মাশরুমের চাহিদা তুঙ্গে ৷

গতবছর ২৩ নভেম্বর কলকাতা  পুলিশের গোয়েন্দাদের হাতে এমডিএমএ- সহ  গ্রেফতার  হয়  আদিত্য ডি শিখওয়ান | ধৃতকে জেরায়  জানা যায়, এসকর্ট গার্লসদের মাধ্যমে মাদকের ব্যবসা বিস্তার করেছে সে ৷ গোয়েন্দাদের দাবি, উৎসবের মরশুমে নেশার রঙিন জগতে অনেকেই মত্ত হয়ে পড়ছেন ৷ এর জন্য কলকাতাকেই ট্রানসিট রুট  হিসাবে ব্যবহার করছে মাদক কারবারিরা৷ এনসিবি গোয়েন্দাদের দাবি, কোকেন আসছে  মেক্সিকো, পেরু, বলিভিয়া, দিল্লি, বেঙ্গালুরু, মুম্বই থেকে কলকাতাতে ৷  ম্যাজিক মাশরুম আসছে নেদারল্যান্ডস থেকে কলকাতায় ৷ এলএসডি, এমডিএমএ এক্সট্যাসি ট্যাবলেট আসছে  ইউরোপ, দক্ষিণ আমেরিকা, চিন থেকে ডার্ক নেটের  মাধ্যমে ৷ মেথাফেটামাইন ইয়াবা ট্যাবলেট  আসছে  মায়ানমার  থেকে ৷ উৎসবের মরশুমে তাই শহরের হোটেল, পাব, বার গুলিতে কলকাতা পুলিশের নারকোটিকস বিভাগ ও নারকোটিকস  কন্ট্রোল  ব্যুরোর কড়া  নজরদারির  ব্যবস্থা করা হয়েছে ৷

প্রাক্তন পুলিশ কর্তা সন্ধি মুখোপাধ্যায় জানান, " উৎসবের মরশুম ছাড়াও নারকোটিকস বিভাগের সব সময়ে কড়া নজরদারি রাখা প্রয়োজন ৷ কারণ এই নেশার জন্য বহু পরিবারের ছেলেমেয়েদের জীবন ধ্বংস হয়ে গিয়েছে | তাই হোটেল বা ক্লাবগুলিতে নারকোটিকসের অতিরিক্ত নজরদারি চালানোর প্রয়োজন রয়েছে ৷ "

পুলিশ সূত্রে খবর, নাইট  ক্লাব, পাব-বারগুলিতে বাড়তি নজরদারি করা হচ্ছে ৷ বাইরে কাউকে সন্দেহভাজন  দেখলেই জিজ্ঞাসাবাদ করা  হচ্ছে ৷  হোটেল, রিসর্টে  আবাসিকদের  পরিচয়  জানতে রেজিস্টার খতিয়ে দেখা হচ্ছে | মার্কেট এলাকা, শপিং মলে  অতিরিক্ত নজরদারি রয়েছে  পুলিশের ৷ রাস্তাগুলিতে নাকা চেকিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে ৷ এছাড়া মহিলা পুলিশের টিম মোতায়েন করা হয়েছে শহরের বিভিন্ন জায়গাতে ৷

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: December 22, 2020, 12:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर