• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • বাইকে স্টান্টের প্রতিবাদ করেছিলেন, দিল্লির রাস্তায় যুবককে কোপাল ৩ নাবালক

বাইকে স্টান্টের প্রতিবাদ করেছিলেন, দিল্লির রাস্তায় যুবককে কোপাল ৩ নাবালক

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

রঘুবীর নগরেরই বাসিন্দা মৃত ওই যুবকের নাম মনীশ (২৫)। তিনি পেশায় গাড়ি চালক।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লিঃ ভিড় রাস্তায় কিশোরদের বাইক স্টান্টের প্রতিবাদ করেছিলেন, এটাই ছিল অপরাধ। পরিণামে দিল্লির রাস্তায় যুবককে প্রকাশ্যে কোপাল এক নাবালক ও তার দুই সঙ্গী। হাড়হিম করা গোটা ঘটনাটি ধরা পড়েছে সিসিটিভি ক্যামেরায়। পুলিশ ইতিমধ্যেই তিন অভিযুক্তকে আটক করেছে। তাদের প্রত্যেকেরই বয়স ১৭ বছরের কম।

    ৮ জুলাই সাংঘাতিক ঘটনাটি ঘটে পশ্চিম দিল্লির রঘুবীর নগরে। রঘুবীর নগরেরই বাসিন্দা মৃত ওই যুবকের নাম মণীশ (২৫)। তিনি পেশায় গাড়ি চালক। জানা গিয়েছে, ব্যস্ত রাস্তায় বাইক স্টান্ট করছিল ওই তিন যুবক, তা নিয়েই প্রতিবাদ করেন তিনি। তারপরই এই মর্মান্তিক ঘটনার শিকার হন তিনি।

    ঘটনার তদন্তে নেমে এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, 'সম্পূর্ণ ঘটনাটি সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে। তাতে দেখা যাচ্ছে, ব্যস্ত রাস্তাতেই মূল অভিযুক্ত কিশোর ছুরি দিয়ে বারবার আঘাত করছে মণীশকে। এমনকী তার এক বন্ধু তাঁকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেও তাতে ব্যর্থ হয়। সে প্রবল আক্রোশে বার বার ফিরে এসে কোপাচ্ছিল।' ডেপুটি কমিশনার অফ পুলিশ (ওয়েস্ট) দীপক পুরোহিত জানিয়েছেন, খেয়ালা পুলিশ স্টেশনে একটি খুনের মামলা রুজু করা হয়েছে।

    সিসিটিভি ফুটেজ ও স্থানীয়দের সূত্র ধরেই তিন অভিযুক্তকে চিহ্নিত করে আটক করেছে পুলিশ। যে ছুরি দিয়ে মণীশকে কোপান হয়, সেটিও উদ্ধার হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, মনীশের শরীরে ২৮টি গভীর ক্ষত ছিল। তাঁর বুক, মাথা, হাত ও পায়ে মারাত্মক ক্ষত তৈরি হয়। এরপরই অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের জেরে মৃত্যু হয় মণীশের। ঘটনার তদন্ত চলছে।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: