সর্ষের জমি থেকে ক্ষতবিক্ষত ও অর্ধনগ্ন অবস্থায় এক মধ্যবয়স্ক মহিলার মৃতদেহ উদ্ধার

সর্ষের জমি থেকে ক্ষতবিক্ষত ও অর্ধনগ্ন অবস্থায় এক মধ্যবয়স্ক মহিলার মৃতদেহ উদ্ধার
যৌন নির্যাতন করেই খুন করেছে।

যৌন নির্যাতন করেই খুন করেছে।

  • Share this:

#লালগোলা :  সর্ষের জমি থেকে ক্ষতবিক্ষত ও অর্ধনগ্ন অবস্থায় এক মধ্যবয়স্ক মহিলার মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ালো  মুর্শিদাবাদের লালগোলা  থানার গোপালনগর এলাকা।মৃত মহিলার নাম নাজেমা খাতুন(৩২)।  পরিবার সূত্রে জানা গেছে নাজিমা খাতুন  সোমবার দুপুরে খাওয়া-দাওয়ার পর মাঠে জ্বালানি কুড়োতে বেরোয় হয় । বেশকিছুক্ষণ হয়ে গেলেও বাড়ি না ফেরায় বাড়ির লোকেরা খোঁজাখুঁজি শুরু করে। তারপরে লক্ষ্য করে বাড়ির কাছেই সরষে জমিতে তার মৃতদেহ পড়ে রয়েছে।

এরপরই লালগোলা থানায় খবর দেওয়া হয়।পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লালবাগ মহাকুমা হাসপাতালে পাঠানো হয়।পরিবার ও স্থানীয়দের দাবি মাটিতে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় পড়েছিলো মৃতদেহ এবং তার মৃত দেহর কাছেই মদের বোতল ও মদের  গ্লাস পড়েছিল ।প্রাথমিকভাবে অনুমান গৃহবধূকে প্রথমে ধর্ষণ তারপর প্রমাণ লোপাটের কারণেই দুষ্কৃতীরা শ্বাসরোধ করে খুন করেছে। জেলা পুলিশ সুপার কে সাবেরী রাজকুমার বলেন, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এর পরই জানা যাবে কিভাবে খুন হয়েছে। অভিযুক্তরা খুব শীঘ্রই ধরা পড়বে।। নাজেমা রা তিন বোন। ছোট দুই  বোনের বিয়ে হয়ে গেল নাজেমা জন্ম থেকেই একটু অস্বাভাবিক হওয়ায় তার বিয়েথা দেয়নি পরিবারের লোকেরা। বাবা কাটিহার এ হকারের কাজ করেন। প্রতিদিনের মত সংসারের জ্বালানির জন্য বাড়ির পাশেই জমি থেকে সর্ষে  তুলে নেওয়ার পর যে গোড়ার অংশটা থাকে তা তুলতে গিয়েছিল নাজেমা। প্রায় ঘন্টাখানেক হয়ে গেলেও বাড়ি ফিরে না আসায় মা সিনিহারা খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। এরপর এই লক্ষ্য করেন জমির মধ্যে মৃতদেহ পড়ে রয়েছে। শরীরের কাপড় ঠিক ভাবে নেই। পাশেই মদের বোতল পড়ে রয়েছে। গলায় ফাঁস দেওয়া হয়েছে। লালগোলা থানার পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। মৃতের বোন সুফিহারা বিবি বলেন, দিদির ছোট থেকেই স্বাভাবিক নয়। সেই কারনে বাবা-মায়ের ওকে বিয়ে দেয়নি। বাড়িতে থাকে মায়ের সাথে। বাড়ির পাশেই জ্বালানি জন্য মাঠে গিয়েছিল। ওকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে বলে আমাদের মনে হয়। আমাদের তো কোন শত্রু নেই। পুলিশ অভিযোগ তাদের গ্রেপ্তার করে উপযুক্ত ব্যবস্থানেক। মা সিনিহারা বিবি মেয়েকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন। জমির মধ্যেই বারেবারে জ্ঞান হারাচ্ছেন।

প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে শারীরিকভাবে তাকে যৌন নির্যাতন করেই খুন করেছে। পুলিশ উপযুক্ত তদন্ত করে ব্যবস্থা নিক।


Pranab Kumar Banerjee

Published by:Debalina Datta
First published: