• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • Drugs Rs 21,000 Cr Seized in Gujarat: গুজরাতের মুন্দ্রা বন্দরে ২১ হাজার কোটি টাকার মাদক বাজেয়াপ্ত ! এসেছে আফগানিস্তান থেকেই, দাবি গোয়েন্দাদের

Drugs Rs 21,000 Cr Seized in Gujarat: গুজরাতের মুন্দ্রা বন্দরে ২১ হাজার কোটি টাকার মাদক বাজেয়াপ্ত ! এসেছে আফগানিস্তান থেকেই, দাবি গোয়েন্দাদের

Declared at the Customs desk as talcum powder, the DRI took a sample of the product and had the powder analysed.

Declared at the Customs desk as talcum powder, the DRI took a sample of the product and had the powder analysed.

Chennai couple arrested in Delhi for smuggling drugs: ড্রাগ উদ্ধারের পর প্রাথমিকভাবে অনুমান করা হয়েছিল, সেগুলির দাম ৩৫০০ কোটি টাকার মতো হবে ৷ তবে ৬ দিন ধরে তদন্ত চালানোর পর বাজেয়াপ্ত হওয়া বিপুল পরিমাণ মাদকের সঠিক বাজারমূল্য জানতে পারেন তদন্তকারী অফিসাররা ৷

  • Share this:

    MANOJ GUPTA

    আহমেদাবাদ: সম্প্রতি গুজরাতের মুন্দ্রা (Mundra Port) বন্দরে ডিরেক্টরেট অফ রেভেনিউ ইন্টেলিজেন্স (DRI) অফিসাররা যে রেকর্ড পরিমাণ মাদক (Drugs) বাজেয়াপ্ত করেছেন, তার বাজারমূল্য শুনলে চমকেই ওঠার মতো ৷ জানা গিয়েছে, ওই পরিমাণ মাদকের দাম ২১ হাজার কোটি টাকা (Drugs Rs 21,000 Crore Seized in Gujarat) ৷ যেগুলি ভারতের বিভিন্ন জায়গায় সাপ্লাই করার জন্যই ওই বন্দরে এসেছিল বলে জানা গিয়েছে ৷

    ড্রাগ উদ্ধারের পর প্রাথমিকভাবে অনুমান করা হয়েছিল, সেগুলির দাম ৩৫০০ কোটি টাকার মতো হবে ৷ তবে ৬ দিন ধরে তদন্ত চালানোর পর বাজেয়াপ্ত হওয়া বিপুল পরিমাণ মাদকের সঠিক বাজারমূল্য জানতে পারেন তদন্তকারী অফিসাররা ৷ যে অঙ্কটা আসলে ২১ হাজার কোটি টাকা ৷

    আরও পড়ুন- শাহরুখের 'ফ্যান’ ছবিতে কেন জবরা গানটি নেই? শিক্ষিকার করা মামলার উত্তর দিল সুপ্রিম কোর্ট

    গোয়েন্দা সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, জঙ্গি কার্যকলাপ চালিয়ে যাওয়ার জন্য আইএসআই (ISI) এবং তালিবানের (Taliban) এই একটাই মাধ্যম ৷ আফগানিস্তানের আশরাফ গনির সরকার এই ধরণের জিনিসপত্র নিষিদ্ধ ঘোষণা করলেও তালিবানদের জমানায় ফের তার ব্যবসা শুরু হয়েছে ৷ যে মাদক গুজরাতের বন্দরে ধরা পড়েছে, তা অত্যন্ত উৎকৃষ্ট মানের হেরোইন (Heroin) বলে পরীক্ষাগারে পরীক্ষার পর জানা গিয়েছে ৷

    উদ্ধার হওয়া মাদক উদ্ধার হওয়া মাদক

    DRI অফিসাররা জানতে পেরেছেন এই মাল বিজয়ওয়াড়ার একটি সংস্থার নামে ভারতে আমদানি করা হয়েছিল ৷ TALC স্টোনের নামে আফগানিস্তান থেকে ইরানের বন্দর আব্বাস হয়ে গুজরাতের মুন্দ্রা বন্দরে এসে পৌঁছেছিল সেগুলি ৷ আফগানিস্তান থেকেই এই ড্রাগ এসেছে বলে নিশ্চিত গোয়েন্দারা ৷ ৪০ টনের দুটি কন্টেনার বাজেয়াপ্ত করা হয় ৷ তারপর সেগুলি গান্ধিনগরের ফরেনসিক সায়েন্স ল্যাবে পাঠানো হয় ৷ সেই পরীক্ষাতেই ধরা পড়ে বাজেয়াপ্ত হওয়া জিনিসগুলি আদতে অনেক দামি হেরোইন ৷ প্রথম কন্টেনারে ১৯৯৯.৫৭৯ কেজি মাদক এবং দ্বিতীয় কন্টেনারে ৯৮৮.৬৪ কেজি মাদক উদ্ধার করা হয় ৷ সবমিলিয়ে তাতে ২৯৮৮.২১৯ কেজি ছিল বলে জানা গিয়েছে ৷

    আরও পড়ুন- রাজনৈতিক পরিযায়ীরা আধা রুটির স্বপ্ন দেখাচ্ছেন... নাম না করে তৃণমূলকে তোপ বিপ্লব দেবের

    এই ঘটনায় চেন্নাইয়ের বাসিন্দা এক দম্পতিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ প্রায় ৩০০০ কেজির মাদকের চোরাচালানের পিছনে তাদের হাত রয়েছে, এমন বেশ কিছু প্রমাণ হাতে এসেছে পুলিশের কাছে ৷ সন্দেহভাজনদের দিল্লি থেকে গ্রেফতার করা হয় ৷

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: