ব্যবসায়ীদের তুলে কোটি কোটি টাকার মুক্তিপণ, সিআইডি  জালে মোস্ট ওয়ান্টেড  কিডন্যাপার , ধৃত চন্দন ! 

ব্যবসায়ীদের তুলে কোটি কোটি টাকার মুক্তিপণ, সিআইডি  জালে মোস্ট ওয়ান্টেড  কিডন্যাপার , ধৃত চন্দন ! 

সিআইডি সূত্রে খবর, বহুদিন ধরে সিআইডির রেডারে নজরদারি চলছিল চন্দনের উপর |

সিআইডি সূত্রে খবর, বহুদিন ধরে সিআইডির রেডারে নজরদারি চলছিল চন্দনের উপর |

  • Share this:

#কলকাতা : সিআইডি  হাতে গ্রেফতার  মোস্ট ওয়ান্টেড  কিডন্যাপার  | ধৃতের নাম চন্দন সোনার  ওরফে চন্দ্র মোহন | মধ্যপ্রদেশ সিংহলি  থেকে গ্রেফতার করেছে  সিআইডি |  তার  সাগরেদ    রাকেশ  সিংকেও  পুণে থেকে ধরেছে সিআইডি  | সিআইডি  সূত্রে খবর,  চন্দন বড়  শিল্পপতি ও কোটিপতি   ব্যবসায়ীদের থেকে  কখনও   পনেরো  কোটি কখনও  সতেরো কোটি কখনও আবার  দশ কোটি  টাকা মুক্তিপণ চেয়ে অপহরণ  করত বলে অভিযোগ | সিআইডি  সূত্রে খবর, পশ্চিমবঙ্গ  ছাড়াও পাঁচ  রাজ্যতে মোস্ট ওয়ান্টেড  ছিল চন্দন |

বিহার, ঝাড়খণ্ড, গুজরাত, ছত্তিশগড়, মধ্যপ্রদেশ সহ মোট  পাঁচটি রাজ্যে  শিল্পপতিদের কিডন্যাপের অভিযোগ রয়েছে চন্দনের  বিরুদ্ধে | এছাড়াও আরও  একাধিক রাজ্যতে  কিডন্যাপিং-র   অভিযোগ চন্দনের বিরুদ্ধে আছে কিনা খতিয়ে  দেখছে সিআইডি | সিআইডি-র  দাবি,  চন্দনের বাড়ি বিহারে | Cid সূত্রে খবর, এই  চন্দন আসানসোলে ২০১৯ সালে এপ্রিলে  সালানপুরে  এক শিল্পপতিকে অপহরণ  করেছিল  | ওই শিল্পপতি  থেকে  দুই কোটি ষাট  লক্ষ টাকা মুক্তিপণ  দাবি করে হাতিয়েছিল  চন্দন | ওই শিল্পপতিকে প্রায়  ৩৫  দিন  পর বিহারের পাটনা থেকে  উদ্ধার করা হয়েছিল |  সেই ঘটনাতে মোস্ট ওয়ান্টেড ছিল  চন্দন সোনার |  সেই ঘটনার  তদন্তে  অবশেষে মোস্ট ওয়ান্টেড চন্দনকে গ্রেফতার করল   সিআইডি৷

সিআইডি  সূত্রে খবর, বহুদিন ধরে সিআইডির  রেডারে নজরদারি  চলছিল চন্দনের উপর |  ভিন রাজ্য পুলিশেরও চন্দনকে  তন্নতন্ন  হয়ে খুঁজছিল |  কারণ, শিল্পপতিদের টার্গেট করতো  চন্দন | তাদেরকে ফিল্মি  কায়দায় অপহরণ  করে কোটি কোটি টাকা মুক্তিপণ নিতো বলে অভিযোগ  সিআইডির  |  ধৃতদের সিআইডি হেফজতে  নিয়ে আর কোন কোন রাজ্যতে এমন অপহরনের  ঘটনা ঘটিয়েছে সে ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করছে সিআইডি  তদন্তকারীরা  | তবে চন্দনকে জেরার জন্য ইতিমধ্যে এসটিএফ সহ অন্যান্য  এজেন্সি  আধিকারিকরা  ও ভিন রাজ্যের  পুলিশও সিআইডি সঙ্গে যোগাযোগ  করছে |  যাতে মোস্ট ওয়ান্টেড চন্দনকে  জেরা করে অপহরণের  একাধিক মামলার সমাধান সূত্র বের করা  যায়  তারই চেষ্টা করছে তদন্তকারীরা  | ARPITA HAZRA

Published by:Debalina Datta
First published:

লেটেস্ট খবর