ক্রাইম

corona virus btn
corona virus btn
Loading

গুলি করে খুন, মোবাইলে ছবি তুলে রাখল আততায়ী! দিল্লিতে হাড় হিম করা সিসিটিভি ফুটেজ

গুলি করে খুন, মোবাইলে ছবি তুলে রাখল আততায়ী! দিল্লিতে হাড় হিম করা সিসিটিভি ফুটেজ
ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়েছে এই ছবি৷ Photo-Twitter

এই ঘটনাটি গত ২২ অক্টোবরের৷ এক প্রত্যক্ষদর্শীর বয়ানের ভিত্তিতে পুলিশ অজ্ঞাতপরিচয় আততায়ীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে তদন্ত শুরু করে৷

  • Share this:

#দিল্লি: মঙ্গলবারই সামনে এসেছিল হরিয়ানার ফরিদাবাদে দিনেদুপুরে এর কলেজছাত্রীকে খুন করার হাড় হিম করা সিসিটিভি ফুটেজ৷ এবার দিল্লির দ্বারকার একটি শ্যুটআউটের ছবি দেখেও শিহরিত গোটা দেশ৷ দ্বারকার এই সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, এক ব্যক্তিকে তাড়া করে এসে দু' বার গুলি করে খুন করল আততায়ী৷ তার পর মৃতের ছবি মোবাইলে তুলে রাখছে সে!

জানা গিয়েছে, এই ঘটনাটি গত ২২ অক্টোবরের৷ এক প্রত্যক্ষদর্শীর বয়ানের ভিত্তিতে পুলিশ অজ্ঞাতপরিচয় আততায়ীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে তদন্ত শুরু করে৷ আততায়ীকে চিহ্নিত করতে ইনফরমারদের কাজে লাগায় পুলিশ৷ অসমর্থিত সূত্রের খবর, মৃত ব্যক্তির নাম বিকাশ মেহতা৷ ৩৫ বছরের বিকাশ দিল্লির মোহন গার্ডেন এলাকার বাসিন্দা৷ ইতিমধ্যেই খুনের অভিযোগে পবন গেহলট নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷

এই ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ দেখলে রীতিমতো শিউরে উঠতে হয়৷ সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, বিকাশ মেহতা নামে ওই ব্যক্তি দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করছেন৷ তার পিছন বন্দুক হাতে ছুটছে আততায়ী৷ খুব কাছ থেকে বিকাশকে গুলি করে আততায়ী৷ সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে ওই যুবক৷ প্রথমবার গুলি চালিয়ে ফিরে যেতেও গিয়েও ফের ঘুরে দাঁড়ায় আততায়ী৷ মৃত্যু নিশ্চিত করতে বিকাশের মাথা লক্ষ্য করে ফের গুলি চালায় সে৷ এর পর ফিরে যেতে গিয়েও আবারও পকেট থেকে মোবাইল বের করে মৃতের ছবি তোলে অভিযুক্ত৷

সিসিটিভি ফুটেজে ঘটনাস্থলের খুব কাছে আরও এক ব্যক্তিকে দেখা যায়৷ গুলি চালানোর ঘটনা ঘটতেই তিনি ভয়ে সরে যান৷ সম্ভবত এই প্রত্যক্ষদর্শীর বয়ান থেকেই মামলা দায়ের করে পুলিশ৷ জানা গিয়েছে, মোটরবাইকে করে যাওয়ার সময় বিকাশের উপরে চড়াও হয় আততায়ী৷ তার পরই প্রাণভয়ে পালানোর চেষ্টা করেন ওই যুবক৷ তদন্তকারীদের অনুমান, সম্ভবত ওই যুবককে খুন করার জন্য আততায়ীকে বরাত দিয়েছিল অন্য কেউ৷ সেই ব্যক্তিকেই পাঠানোর জন্য মৃতের ছবি তুলে রেখেছিল আততায়ী৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: October 28, 2020, 4:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर