Home /News /crime /

শ্যালিকাকে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার জামাইবাবু

শ্যালিকাকে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার জামাইবাবু

প্রতীকী ছবি ৷

প্রতীকী ছবি ৷

নদিয়ার চাকদহে ছাত্রী খুনে চাঞ্চল্যকর মোড়

  • Share this:

    #নদিয়া: নদিয়ার চাকদহে ছাত্রী খুনে চাঞ্চল্যকর মোড় ৷ শ্যালিকাকে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার জামাইবাবু। গত শুক্রবার থেকে নিখোঁজ ছিল দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী বর্ষা দাস। চলতি সপ্তাহের সোমবার উদ্ধার হয় তার দেহ। তদন্তে নেমে মঙ্গলবার স্থানীয় মথুরগাজি এলাকা থেকে তারক ঘোষ নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সম্পর্কে তিনি বর্ষার জামাইবাবু ৷

    চাকদহের আলাইপুর। এই বাড়িতেই থাকত মদনপুর উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী বর্ষা দাস। গত সোমবার বিকেলে টিউশন পড়তে যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল। আর ফেরেনি বাড়ি। গত রবিবার বাড়ির লোকেরা প্রথমে চাকদহ থানায় একটি নিখোঁজের অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগে সন্দেহভাজন হিসেবে উল্লেখ করা হয় এক স্থানীয় যুবকের নাম। এরপর সোমবার আলাইপুর থেকে প্রায় পনেরো কিলোমিটার দূরে কামালপুরের ধনিচা থেকে বর্ষার ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মোবাইলের সঙ্গে সঙ্গেই উদ্ধার হয় বই, খাতা ও স্কুলের ব্যাগ। ওই দিনই দেহ শনাক্ত করে পরিবার।

    আরও পড়ুন 

    এই পাঁচটি জিনিস কাছে থাকলে আপনিও হতে পারেন ‘বড়লোক’

    তদন্তে নেমে সোমবারই চাকদহ থানা আটক করে স্থানীয় ওই যুবককে। শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। পুলিশের দাবি, জেরায় তারা জানতে পারে ওই যুবক নয়, ঘটনার পিছনে রয়েছেন বর্ষার খুড়তুতো জামাইবাবু তারক ঘোষ। পেশায় ব্যবসায়ী তারকের সঙ্গে বর্ষার সম্পর্ক ছিল। পুলিশের অনুমান, অন্য কোথাও খুন করে ধনিচায় দেহ ফেলা হয়েছিল।

    এই সূত্রকে হাতিয়ার করে মঙ্গলবার মথুরাগাছি থেকে অভিযুক্ত তারক ঘোষ ও তার দুই সঙ্গীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বর্ষা খুনের তদন্তে নেমে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ীই খুন করা হয়েছে বর্ষাকে। কারণ, বর্ষার সঙ্গে তাঁর জামাইবাবু তারক ঘোষের অবৈধ সম্পর্কে সম্প্রতি চিড় ধরতে শুরু করেছিল। তাই রাস্তা থেকে সরিয়ে দিতেই এই খুন তারকের পাতা ফাঁদে পা দিয়ে শুক্রবার বাড়ি ছেড়েছিল বর্ষা।

    আরও পড়ুন 

    এই উপায়ে মাত্র ১ টাকায় কিনুন ১ কিলো চাল, ডাল এবং আটা

    লেদ ব্যবসায়ীর মেয়ে বর্ষা ছ’বোনের মধ্যে সবচেয়ে ছোট। এদিকে, বর্ষা খুনে ব্যবহৃত গাড়ির খোঁজ করছে পুলিশ। এদিন আদালতের সামনে পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় তার পরিবার। অভিযুক্ত তারক ঘোষের কড়া শাস্তির দাবি করা হয়েছে।

    First published:

    Tags: Brother-in-law, Extra Marital Affair, Murder, Sister-in-law

    পরবর্তী খবর