হাড়হিম ! নির্জন রাতে প্রেমিকাকে গলা টিপে গায়ে আগুন জ্বালিয়ে খুন প্রেমিকের

হাড়হিম ! নির্জন রাতে প্রেমিকাকে গলা টিপে গায়ে আগুন জ্বালিয়ে খুন প্রেমিকের

খুনের পর গায়ে পেট্রোল ঢেলে দেশলাই এর আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হয়

  • Share this:

SEBAK DEBSARMA

#মালদহ: রীতিমতো পরিকল্পনা করে ঠান্ডা মাথায় মালদহের কোতয়ালিতে যুবতীকে খুন করে পুড়িয়ে দেওয়া হয় । বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে যুবতীকে ৷ ডাকা হয় মালদহে । এরপর রুটি,মাংস ও মদ খাইয়ে কার্যতঃ আচ্ছন্ন করে দেওয়া হয়। আগে থেকেই ব্যাগে করে পেট্রোল এবং দেশলাই সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিল খুনী।গভীর রাতে নির্জন আম বাগানে প্রেমিকাকে গলা টিপে খুন করে, আগুনে পুড়িয়ে দিয়ে একবারও ফিরেও তাঁকায়নি বাপন ঘোষ ওরফে ছোটন । ধৃতকে নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুর্ননির্মাণে এমনই নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য জানল পুলিশ। শিলিগুড়ির অম্বিকানগরের বাসিন্দা বছর পঁচিশের যুবতী খুনের ঘটনায় প্রেমিকে গত বুধবার গ্রেফতার করে মালদহ পুলিশ। গত ৫ ডিসেম্বর মালদহে কোতয়ালির আম বাগান থেকে উদ্ধার হয় যুবতীর আধপোড়া দেহ। কিন্তু, কী করে খুন করা হয়েছিল ওই যুবতীকে? শুক্রবার বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ কর্তাদের সামনে সেই ঘটনায় কার্যত অভিনয় করে দেখাল খুনি ।

এদিন বিকেল নাগাদ ইংরেজবাজার থানার পুলিশ কর্তারা কোতুয়ালীর ধানতলার আমবাগানে নিয়ে যায় ছোটনকে। কোথা থেকে কীভাবে আনা হয়েছিল বাগানে, কোথায় বসে খুনের আগে দু'জনে মিলে রুটি,মাংস ও মদ খেয়েছিল, সেই জায়গায়ও পুলিশকে দেখায় অভিযুক্ত। জানায় অতিরিক্ত মদ্যপানের পর যুবতী কার্যতঃ আচ্ছন্ন হয়ে পড়ে। এরফলে গলা টিপে খুন করতে কোনো বাঁধাই পেতে হয়নি।

। প্রেমিকার দেহ জ্বালিযে দেওয়ার পর আর পিছন ফিরে তাকায়নি । নির্জন আম বাগানের পথ বেশ ভালভাবে চেনা ছিল তাঁর। রাত একটার মধ্যে খুন ও পুড়িয়ে ফেলার পর বাগানের পথ ধরেই সাইকেলে চড়ে নিশ্চিন্তে বাড়িও ফিরে আসে সে । খুনের পর প্রেমিকার মোবাইল বাড়িতে নিয়ে গিয়ে গোয়াল ঘরে পুঁতে দেয় ছোটন। এরপর পুলিশকে ফাঁকি দিতে সাধারণ জীবন যাপনই বহাল রাখে ।

পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানিয়েছেন, খুনের পেছনে বিবাহ বর্হিভূত সম্পর্ক নিয়ে অশান্তি মূল কারণ বলে পুলিশকে জানিয়েছে অভিযুক্ত। পুলিশের তরফে বার বার বিয়ের জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছিল প্রেমিকে। বিয়েতে রাজি না হওয়ায় সম্প্রতি যোগাযোগ কমিয়ে দেন তাঁরা। ব্লক করে দেয় তাঁর ফোন । এতে অন্য কোনো পুরুষের সঙ্গে নতুন সম্পর্ক তৈরি হয়েছে বলে আশঙ্কা দানা বাঁধে প্রেমিকের মনে। নিজে বিবাহিত হওয়ায় প্রেমিকাকে বিয়ে করে বাড়িতে তোলায় বাধা ছিল। আবার প্রেমিকা অন্য কারো সঙ্গে সম্পর্ক গড়বে তাও মেনে নিতে পারেনি প্রেমিক ৷

এরপর তৈরি হয় খুনের পরিকল্পনা । তাঁর প্রতি প্রেমিকার দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে প্রথমে যুবতীকে মালদহে ডেকে পাঠায় প্রেমিক। এরপর তাঁকে দুনিয়া থেকে সরানোর ছক কষে। জেলা পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, দিন কয়েকের মধ্যে ঘটনার চার্জশিট দিয়ে দেবে পুলিশ, এমনটাই জানা গিয়েছে ।​

First published: December 13, 2019, 8:55 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर