আর্থিক প্রতারণার বড় চক্র ফাঁস, ইডি-র জালে অভিনেতা সচিন জোশী

আর্থিক প্রতারণার বড় চক্র ফাঁস, ইডি-র জালে অভিনেতা সচিন জোশী
সচিন জোশী

মুম্বইয়ের ওমকার রিয়্যালিটি গ্রুপের আর্থিক প্রতারণার ঘটনার সঙ্গে সচিনের যোগ থাকার জন্যই তাঁকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে খবর। রবিবার তাঁকে গ্রেফতার করার পরই নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে ইডি।

  • Share this:

    #মুম্বই: ব্যবসায়ী এবং বলিউড অভিনেতা সচিন জোশীকে গ্রেফতার করল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED)। মুম্বইয়ের ওমকার রিয়্যালিটি গ্রুপের আর্থিক প্রতারণার ঘটনার সঙ্গে সচিনের যোগ থাকার জন্যই তাঁকে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে খবর। রবিবার তাঁকে গ্রেফতার করার পরই নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে ইডি।

    সচিন জোশী বলিউডে পরিচিত মুখ। বেশ কয়েকটি হিন্দি ছবিতে কাজ করেছেন তিনি। তালিকায় রয়েছে 'আজান', 'মুম্বই মিরর', সানি লিওনের সঙ্গে 'জ্যাকপট' নামের ছবিগুলিতে অভিনয় করেছেন সচিন। বিজয় মালিয়ার গোয়ার বাংলো কিংফিশার ভিলাটি কেনার কারণেও কিছুদিন আগে শিরোনামে এসেছিলেন তিনি। ২০১৭ সালে এই ভিলাটির দাম ছিল ৭৩ কোটি টাকা।

    জেএমজে (JMJ) গ্রুপের হয়ে প্রচারের কাজ করেছিলেন সচিন। ইডি সেই গ্রুপের আর্থিক লেনদেনে কারচুপি এবং প্রতারণার সন্দেহে সচিনকে গ্রেফতার করেছে। ওমকার রিয়্যালিটি গ্রুপের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা। সোমবার তাঁকে মুম্বইয়ের প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং কোর্ট (PMLA)-এ তোলার কথা ছিল। পাঁচদিন ধরে টানা ইডি জেএমজে সংস্থা এবং সচিনের বাড়িতে লাগাতার তল্লাশি চালিয়েছে। তার পরেই সচিনকে গ্রেফতারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। অভিযুক্ত সংস্থা হসপিটালিটি, কনস্ট্রাকশন, পানীয় কারখানা ও পান মশলা ৈতরির কাজের সঙ্গে যুক্ত।


    এর আগে মুম্বইয়ের অন্যতম বড় বিল্ডার ওমকার রিয়্যালিটির দফতরেও হানা দিয়ে তল্লাশি চালিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, স্লাম রিহ্যাবিলিটেশন অথরিটির (SRA) জন্য ইয়েস ব্যাঙ্ক থেকে ওই সংস্থা প্রায় ৪৫০ কোটি ঋণ নিয়েছে। কিন্তু সেই টাকা দেওয়া হয়নি। সাতটি বাড়ি এবং তিনটি দফতরে ইডি তল্লাশি চালিয়েছে। ওমকার গ্রুপের চেয়ারম্যান কমল গুপ্তা এবং ম্যানেজিং ডিরেক্টর বাবুলাল ভার্মাকেও আর্থিক প্রতারণার দায়ে গ্রেফতার করেছে ইডি।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published:

    লেটেস্ট খবর