যাওয়ার কথা ছিল কলকাতায়, দোকান থেকে মিলল ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত মৃতদেহ

যাওয়ার কথা ছিল কলকাতায়, দোকান থেকে মিলল ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত মৃতদেহ
আত্মহত্যা নাকি অন্য কোনও কারণে এই মৃত্যু তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

আত্মহত্যা নাকি অন্য কোনও কারণে এই মৃত্যু তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

  • Share this:

#পূর্ব বর্ধমান: দোকান থেকে উদ্ধার হল এক ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত মৃতদেহ। পূর্ব বর্ধমান জেলার ভাতার বাজারে এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। আত্মহত্যা নাকি অন্য কোনও কারণে এই মৃত্যু তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। মৃতদেহ উদ্ধার করে বর্ধমান মেডিকেল কলেজে ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার সাতসকালে ভাতার বাজারে একটি কাপড়ের দোকানে ব্যবসায়ীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারকে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়।স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই ব্যবসায়ীর নাম শেখ মকবুল ইসলাম। তিনি ভাতারের বেলেন্ডা গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন।ভাতার রেলস্টেশন বাজারে একটি কাপড়ের দোকান করেছিল।খুব কম সময়ে তিনি নিজেকে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন বলে জানিয়েছেন অন্যান্য ব্যবসায়ীদের।

কলকাতায় দোকানের সামগ্রি আনতে যাওয়ার কথা বলে বৃহস্পতিবার সকালে তিনি ঘর থেকে বেরিয়েছিলেন। কিন্তু সন্ধ্যার পর বাড়ির লোকেরা আর ফোনে যোগাযোগ করতে পারছিলেন না। তাঁরবাবা নুরুল ইসলাম রাতে দোকানে খোঁজও নিতে এসেছিলেন। দোকানের চাবি লাগানো দেখে তিনি বাড়ি ফিরে যান।


দোকানের কর্মচারী সুচাঁদ দাস শুক্রবার সকালে এসে দেখেন দোকানে চাবি খোলা। তিনি দোকানের শাটার তুলতেই মালিক শেখ মকবুল ইসলামের দেহ সিলিং ফ্যানে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। তাঁর চিৎকারে আশেপাশে দোকানদাররা ছুটে আসেন। খবর দেওয়া হয় ভাতার থানায়।পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠায়।

মৃতের কাকা শেখ শফিক জানান, বাড়িতে কোনও অশান্তি হয়নি। গতকাল সকালে কলকাতা যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে এসেছিল। আজ সকালে খবর পেলাম তার মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। কি থেকে কি হলো কিছুই বুঝে উঠতে পারছি না।

প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের অনুমান ওই ব্যবসায়ী গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন। তবে আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি। পুলিশ অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। ঠিক কী কারণে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে তা ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পরিষ্কার হয়ে যাবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

Saradindu Ghosh

Published by:Debalina Datta
First published: