• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • BE AWARE OF THESE NUMBERS WHICH MAY LOOK LIKE BANKS TOLL FREE NUMBER TO PROTECT FROM ONLINE FRAUD DD TC

এই সব নম্বর থেকে ফোন এলেই সাবধান! HelpLine-র মতো এই নম্বরগুলি চিনে নিন

be aware of these numbers which may look like banks toll free number to protect from online fraud- Photo-Representative

প্রতারকদের হাত থেকে বাঁচতে সতর্ক করেছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (Reserve Bank Of India)।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বহু ব্যাঙ্ক গ্রাহক এখন প্রতারণার শিকার হচ্ছেন। ফোন করে ব্যাঙ্কের ব্যক্তিগত ও সম্পূর্ণ গোপনীয় তথ্য জানতে চাইছে প্রতারকরা। অনেক গ্রাহক কিছু না বুঝে তা দিয়ে দিচ্ছেন। আর তার পরে ফল ভুগতে হচ্ছে গ্রাহকদের। মুহূর্তের মধ্যে ফাঁক হয়ে যাচ্ছে ব্যঙ্ক অ্যাকাউন্ট। অনেকেই শেষ সম্বলটুকু হারাচ্ছেন। প্রতারকদের হাত থেকে বাঁচতে সতর্ক করেছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (Reserve Bank Of India)। গ্রাহকদের কী কী করণীয় সে বিষয়ে একটি নির্দেশাবলী প্রকাশ করেছে। পাশাপাশি স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার (SBI) তরফেও নিজেদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে একটি নির্দেশাবলী আপলোড করা হয়েছে।

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ও স্টেট ব্যাঙ্কের তরফে প্রকাশ করা ওই নির্দেশাবলী অনুযায়ী, প্রতারকরা মূলত মোবাইল নম্বরে ফোন করছে এবং গোপন তথ্য জানতে চাইছে। যে নম্বরগুলি থেকে ফোন করা হচ্ছে সেগুলি দেশের বড় বড় ব্যঙ্কগুলির ক্ষেত্রে যে টোল ফ্রি নম্বর ব্যবহার করা হয় তার সঙ্গে প্রায় এক। এক দুটি সংখ্যার অদলবদল ঘটিয়ে গ্রাহকদের ফোন করা হচ্ছে। এবং বিভিন্ন গোপন তথ্য জানতে চাওয়া হচ্ছে। এই বিষয়ে গ্রাহকদের আরও সচেতন হওয়ার জন্য আবেদন করা হয়েছে।

সাধারণত টোল ফ্রি নম্বরগুলির কোড শুরু হয় ৮০০, ৮৮৮, ৮৪৪, ৮৫৫ ইত্যাদি। কিন্তু এর আগে সবক্ষেত্রে ১- সংখ্যাটি থাকে। সুতরাং নম্বরটি হয় ১৮০০ ২২৩ ৪৬৪। কিন্তু প্রতারকরা প্রায় একই নম্বর জোগাড় করছে। কিন্তু তাদের নম্বরের শুরুতে ১- সংখ্যাটি থাকে না। তাই তারা যে নম্বরগুলি থেকে ফোন করছে সেগুলি সাধারণত ৮০০-২২৩-৪৬৪ এই রকমের দেখতে হয়। এই নম্বরটি প্রতারকরা কোনও একটি ব্যাঙ্কের নামে কলার আইডেন্টিফিকেশন অ্যাপ্লিকেশনে নথিভুক্ত করে রাখছে। কখনও তারা স্টেট ব্যাঙ্কের নামে করছে, কখনও পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের নামে করছে বা অন্য কোনও ব্যাঙ্কের নামে।

যখনই কোনও প্রতারক কোনও গ্রাহকের গোপন নম্বর জেনে যাবে তখন তারা ডেবিট অথবা ক্রেডিট কার্ড অ্যাকসেস করতে পারবে, প্যান কার্ড ডিটেলস পেয়ে যাবে, ইউজারনেম ও OTP হাতিয়ে নিতে পারবে।

তাই রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ও অন্য ব্যাঙ্কগুলির তরফে জানানো হয়েছে গোপন তথ্য জানতে চেয়ে কোনও ফোন এলে তা যেন এড়িয়ে যান গ্রাহকরা। পুলিশ ও ব্যাঙ্কে জানানোর পরামর্শও দেওয়া হয়েছে।

Published by:Debalina Datta
First published: