কাটা মুন্ডু কাণ্ডে পুলিশের জালে খুনি, বাড়িতে কসাই ডেকে স্ত্রী-কে খুনের অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধেই

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 20, 2019 05:13 PM IST
কাটা মুন্ডু কাণ্ডে পুলিশের জালে খুনি, বাড়িতে কসাই ডেকে স্ত্রী-কে খুনের অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধেই
মিসিং ডায়েরি করে পুলিশকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা কাজে এল না। রাস্তার সিসিটিভি ফুটেজেই পড়ে গেলেন শিবপুরের উপেন্দ্র রজক। ১৮-ই জুলাই সকালে বালির জেটিয়াঘাটে ভেসে আসা একটি ব‍্যাগ থেকে উদ্ধার হয় এক মহিলার কাটা মুন্ডু ও দেহাংশ। ব‍্যাগ থেকে উদ্ধার হয় বেশ কয়েকটি ধারাল অস্ত্র, কিছু পোশাক। তদন্তে নামে বালি থানার পুলিশ। খতিয়ে দেখা হয় জেটিয়াঘাটের সিসিটিভি ফুটেজ। এর আগে কাটা মুন্ডুর ছবি তুলে বিভিন্ন থানায় পাঠানো হয় ৷ শিবপুর থানায় সোনি রজক নামে এক মহিলার মিসিং ডায়েরি হয়েছে বলে খবর আসে ৷
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 20, 2019 05:13 PM IST

#কলকাতা:  অবশেষে খুন হওয়া তরুণীর পরিচয় পাওয়া গেল ৷  বাড়িতে কসাই ডেকে স্ত্রী-কে খুন করার অভিযোগে গ্রেফতার স্বামী-সহ ৩ ৷ শিবপুরের গণেশ চ্যাটার্জি লেন থেকে ধৃত মহিলার স্বামী উপেন্দ্র রজক এবং তার দুই সঙ্গী ৷ গ্রেফতার দিলওয়ার খান নামের এক কসাই ৷ সিসিটিভি ফুটেজ দেখে উপেন্দ্রদের গ্রেফতার করে পুলিশ ৷

গত ১৮ জুলাই মহিলার মুন্ডু ও দেহাংশ উদ্ধার হয় বালির জেটিয়া ঘাটে ৷ একটি ব্যাগের মধ্যে মেলে দেহাংশ ৷ মহিলার বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরেই খুন ৷ ধৃতদের জেরা করার পর অনুমান পুলিশের ৷

বালির গঙ্গার ঘাটে তরুণীর কাটা মাথা উদ্ধারের পর ভালমতোই আতঙ্ক ছড়ায় ৷ যে জায়গা থেকে তরুণীর কাটা মাথা এবং দেহের উপরের অংশ উদ্ধার করা হয়, তা স্থানীয়রাই খুব একটা ভালমতো চেনেন না ৷ সেখানে কোনও বাইরের লোক কীভাবে এই জায়গার খোঁজ পেল, তা যথেষ্ট ভাবিয়ে তুলেছিল পুলিশকে ৷ দুষ্কৃতীরা ঢুকল কোথা থেকে ৷ সিসিটিভি ফুটেজে তা স্পষ্ট হচ্ছিল না ৷ উদ্ধার হওয়া ওই কাটা মাথায় কোনও পচনও ধরেনি ৷ গঙ্গার ঘাটের কাদামাটি লাগা ছাড়া কাটা মাথাটি একেবারে ঠিকঠাকই রয়েছে ৷ তাই গঙ্গায় ভেসে যে সেটি আসেনি তা স্পষ্ট ছিল ৷

বাড়িতে কসাই ডেকে স্ত্রীকে খুন করা হয়। অভিযোগ, হাওড়ার শিবপুরের বাসিন্দা সোনি রজকের দেহ টুকরো টুকরো করে কেটে ব্যাগে ভরে গঙ্গায় ভাসিয়ে দেন স্বামী। গত ১৮ জুলাই বালির জেটিয়াঘাট থেকে উদ্ধার হয় এই ব‍্যাগ। শিবপুর থানায় সোনি রজকের নামে একটি মিসিং ডায়েরিও করা হয়েছিল। এই মিসিং ডায়েরি থেকে দেহ শনাক্ত করে পুলিশ। সিসিটিভি দেখে অভিযুক্তকে চিহ্নিত করেন তারা। শিবপুরের গণেশ চ্যাটার্জি লেন থেকে গ্রেফতার করা হয় নিহতের স্বামী উপেন্দ্র রজককে। গ্রেফতার করা হয় দিলওয়ার খান নামের এক কসাইকেও। সাকিল নামের আরও একজনের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। মহিলার বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরে খুন বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান পুলিশের।

First published: 11:02:52 AM Jul 20, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर