পনের দাবিতে নির্যাতন গৃহবধূকে, গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনায় ৭ বছরের জেল স্বামীর

পনের দাবিতে নির্যাতন গৃহবধূকে, গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনায় ৭ বছরের জেল স্বামীর
প্রতীকী ছবি ৷

উত্তর ২৪ পরগনার গোপালনগর থানার নিশ্চিন্তপুরের বাসিন্দারা সিতল শিকারীরা বিয়ে হয়

  • Share this:

#বনগাঁ: পনের দাবিতে নির্যাতন ও আগুন পুড়ে আত্মহত্যায় প্ররোচণার দায়ে স্বামীকে ৭ বছরের সাজা দিল বনগাঁ আদালত ৷ নদিয়ার হরিণঘাটা থানা এলাকার সোনাখালির বাসিন্দা সুনিল বাগের মেয়ে লক্ষ্মী (রূপা) বাগের সঙ্গে ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ ৷ উত্তর ২৪ পরগনার গোপালনগর থানার নিশ্চিন্তপুরের বাসিন্দারা সিতল শিকারীরা বিয়ে হয় l

বিয়ের সময় ১৫,০০০ টাকা পান দিলেও কিছু টাকার দাবি ছিল কিন্তু দিতে পারেনি সুনিল বাগ সেই কারণেই তার মে কে স্বামী শশুর ননদ অত্যাচার করতেন l অত্যাচার সইতে না পেরে ২১ জুলাইয়ে গাঁয়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা এবং ২৬ জুলাই মারা গিয়েছেন l

পরবর্তীতে ১ অগাস্টে ওই রমণী মা গোপালনগর থানায় স্বামী, শশুর, ননদ বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেবার মামলা দায়ের করে l পাঁচ বছর মামলা চলার পরে আজ বনগাঁ আদালতের ফাস্ট ট্রাক-২ কোর্টের বিচারক অশিম কুমার দেবনাথ ৷ স্বামী সিতল শিকারিকে ৭ বছরের সাজা ও অনাদায়ে ১০ টাকা জরিমানার আদেশ দেয় l

First published: 08:47:51 PM Jul 26, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर