Home /News /crime /
ফোন চোর সন্দেহে পুরুষাঙ্গে ঢুকিয়ে দেওয়া হল পেট্রোল

ফোন চোর সন্দেহে পুরুষাঙ্গে ঢুকিয়ে দেওয়া হল পেট্রোল

দুই কিশোর সহ চার জনকে মোবাইল চোর সন্দেহে বেধড়ক মারধর করার পর গোপানাঙ্গে পেট্রোল ইনজেক্ট করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ ৷

  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #গাজিয়াবাদ: নৃশংস ও অমানবিকতার সাক্ষী রইল গাজিয়াবাদ ৷ দিল্লি গাজিয়াবাদে দুই কিশোর সহ চার জনকে মোবাইল চোর সন্দেহে বেধড়ক মারধর করার পর গোপানাঙ্গে পেট্রোল ইনজেক্ট করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ ৷

    স্থানীয় সমাজবাদী পার্টির নেতার ভাই রিজওয়ানের বিরুদ্ধে এই নৃশংস আচরণের অভিযোগ উঠেছে ৷ পুলিশ সূত্রে খবর, রিজওয়ানের সঙ্গে থাকা তাঁর দুই বন্ধুও এই কাজে তাকে সাহায্য করেন ৷

    গাজিয়াবাদে রিজওয়ান একটি দুধের দোকান চালান ৷ গত শুক্রবার স্থানীয় চার যুবককে দেখে রিজওয়ানের সন্দেহ হয়, এরাই তাঁর মোবাইল চুরি করেছে ৷ জিজ্ঞাসাবাদ করতে চারজনকে নিজের দোকানে ডেকে পাঠান রিজওয়ান ৷ সেসময় দোকানে তাঁর দুই বন্ধু অখিল ও নাদিমও উপস্থিত ছিল ৷

    প্রায় ঘণ্টাখানেক ধরে মোবাইল চোর সন্দেহে প্রচন্ড মারধর করা হয় জাহির বেগ (১৭), গুলজার (১৬) এবং বছর পঁচিশের ফিমো ও ফিরোজকে ৷ এখানেই শেষ হয়নি অত্যাচার ৷ রিজওয়ানের বাইক থেকে পেট্রোল ইনঞ্জেকশন সিরিঞ্জে ভরে প্রত্যেকের পুরুষাঙ্গে অসংখ্যবার সিরিঞ্জ ফুটিয়ে ঢুকিয়ে দেওয়া হয় পেট্রোল ৷ যন্ত্রণায় আর্তনাদ করতে করতে প্রায় অজ্ঞান হয়ে যায় চার জন ৷ এই নৃশংস অত্যাচারে রিজওয়ানকে সাহায্য করে তাঁর দুই বন্ধুও ৷

    পুলিশ জানিয়েছে, ওই অত্যাচারিত চারজনই এই মুহূর্তে হাসপাতালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন ৷ কিশোর জাহির ও গুলজারের অবস্থা সবচেয়ে গুরুতর ৷ ডাক্তাররা জানিয়েছেন, তাদের স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরাতে একাধিক অপারেশনের প্রয়োজন ৷ ঘটনায় পুলিশ রিজওয়ান ও তাঁর বন্ধু অখিলকে গ্রেফতার করেছে ৷ পলাতক নাদিমের খোঁজে চলছে তল্লাশি ৷

    First published:

    Tags: Allegedly Over Stolen Phone, Mobile Theif, Petrol In Private Parts, Unnatural offences

    পরবর্তী খবর