• Home
  • »
  • News
  • »
  • crime
  • »
  • কানপুরে ৮ পুলিশকর্মীর হত্যাকাণ্ডে গ্রেফতার বিকাশের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা ২ পুলিশকর্মী!

কানপুরে ৮ পুলিশকর্মীর হত্যাকাণ্ডে গ্রেফতার বিকাশের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা ২ পুলিশকর্মী!

Eight policemen were killed while they were going to arrest notorious local criminal Vikas Dubey.

Eight policemen were killed while they were going to arrest notorious local criminal Vikas Dubey.

গত ২দিন ধরে এই ২ পুলিশকর্মীকে লাগাতার জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছিল৷ গ্যাংস্টার বিকাশ যাদবের সঙ্গে এই ২ পুলিশকর্মীর যোগ ছিল বলে সন্দেহ ছিল প্রথম থেকেই৷ শেষ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হল তাদের৷

  • Share this:

    #কানপুর: কানপুর কাণ্ডে পুলিশের জালে ২ পুলিশকর্মী! গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের সঙ্গে এদের নিয়মিত যোগাযোগ ছিল বলে অভিযোগ৷ গত সপ্তাহে বিকাশের দলবলের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে প্রাণ যায় ৮ পুলিশকর্মীর৷ তারপর থেকেই পলাতক বিকাশ৷ বুধবার সকালে পুলিশের সঙ্গে এনকাউন্টারে মারা গিয়েছে বিকাশের ডান হাত অমর দুবে৷

    যে ২ পুলিশকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে তারা হলেন চৌবেপুর থানার প্রাক্তন স্টেশন হাউজ অফিসার বিনয় তিওয়ারি এবং বিট ইন চার্জ কে কে শর্মা৷ বিকাশ দুবেকে গ্রেফতার করতে যে পুলিশের টিম গিয়েছিল, তাতে এরা দু’জনেই সামিল ছিলেন৷ তবে এনকাউন্টারের সময় এরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে গিয়েছিলেন, জানান কানপুরের রেঞ্জ ইন্সপেক্টর জেনারেল মোহিত আগরওয়াল৷

    গত ২দিন ধরে এই ২ পুলিশকর্মীকে লাগাতার জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছিল৷ গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের সঙ্গে এই ২ পুলিশকর্মীর যোগ ছিল বলে সন্দেহ ছিল প্রথম থেকেই৷ শেষ পর্যন্ত গ্রেফতার করা হল তাদের৷

    বিকরু গ্রামে বিকাশ দুবের বাড়ি পৌঁছনোর পর থেকে শুরু হয় পুলিশ ও গ্যাংস্টার বিকাশের দলের গুলির লড়াই৷ সেই গুলির লড়াইয়ে ঘটনাস্থলেই প্রাণ গিয়েছে ৮ পুলিশকর্মীর৷ আর এই ঘটনায় তিওয়ারি ও শর্মাকে রবিবার সাসপেন্ড করা হয়৷ আর তারপর গ্রেফতার৷

    প্রমাণ মিলেছে যে সেই দিন বিকাশের বাড়িতে পুলিশ পৌঁছনোর খবর এই দুই পুলিশকর্মী বিনয় তিওয়ারি ও কেকে শর্মাই গ্যাংস্টারকে জানিয়েছিলেন৷ তাই বিকাশও সজাগ হয়ে গিয়েছিলেন এবং পাল্টা হামলার জন্য প্রস্তুত ছিলেন৷

    বুধবার সকালে চৌবেপুরের ৮ পুলিশ খুনে অভিযুক্ত বিকাশ দুবের ডান হাত অমর দুবেকে খতম করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের বিশেষ ব্রাঞ্চ৷ বৃহস্পতিবার গভীর রাতে দুষ্কৃতীদের সঙ্গে পুলিশের গুলির লড়াইয়ের পর থেকেই বেপাত্তা মূল অভিযুক্ত বিকাশ৷ এবার তার সঙ্গী এবং খুবই ঘনিষ্ঠ অমরের মৃত্যু হল পুলিশের এনকাউন্টারে৷ হামিরপুরে বুধবার সকাল থেকে দু’পক্ষের গুলির লড়াই শুরু হয়৷ অমরকে ঘিরে ধরে পুলিশ৷ শেষ পর্যন্ত হার মানতে হয় দুষ্কৃতীকে৷

    পুলিশ সূত্রের খবর, বুধবার সকাল ৬.৩০ মিনিটে শুরু হয় এনকাউন্টার৷ পুলিশের কাছে খবর ছিল যে, মৌধে এক আত্মীয়র বাড়িতে লুকিয়ে রয়েছে অমর৷ এর আগে ফরিদাবাদে গা ঢাকা দিয়েছিল সে কিন্তু উত্তরপ্রদেশের এসটিএফের চাপে সেখান থেকে পালাতে বাধ্য হয় অমর৷ চলে আসে মৌধে৷ সেখানেই পুলিশ তাকে ঘিরে ধরে৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: