করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

সামনের চার থেকে ছয় মাস আরও ভয়ঙ্কর হতে চলেছে, সাবধানবাণী বিল গেটসের

সামনের চার থেকে ছয় মাস আরও ভয়ঙ্কর হতে চলেছে, সাবধানবাণী বিল গেটসের

বিল গেটস জানাচ্ছেন,পরের চার থেকে ছয় মাস সবচেয়ে খারাপ প্রভাব পড়তে চলেছে। ভাইরাসের কারণে আরও দুই লক্ষ মানুষের মৃত্যু হতে পারে শুধু আমেরিকায়।

  • Share this:

#ওয়াশিংটন: আজ থেকে বছর পাঁচেক আগে ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন তিনি। যদিও তিনি নিজে নিজেকে ভবিষ্যৎদ্রষ্টা বলে ব্যাখ্যা করতে চান না। নির্দিষ্ট কিছু খবর এবং সমীক্ষার মাধ্যমে তুলে ধরেছিলেন তথ্য। তখন তাঁর কথায় গুরুত্ব দেওয়ার প্রয়োজন মনে করেননি কেউ। কিন্তু মাইক্রোসফ্ট কো ফাউন্ডার বিল গেটস অবশ্য কৃতিত্ব নিতে চান না। বরং পৃথিবীর বর্তমান অবস্থায় চিন্তিত তিনি। আগেই জানিয়েছিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতিদের মত জনসমক্ষে তিনিও ভ্যাকসিন নেবেন। সামনে থেকে দাঁড়িয়ে নেতৃত্ব দেবেন এই লড়াইয়ে। তিনি নিজে এবং তাঁর স্ত্রী মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে কয়েকশো কোটি টাকা খরচ করা হয়েছে অতিমারি অবস্থা সামাল দেওয়ার জন্য।

বিল গেটস জানাচ্ছেন, পরের চার থেকে ছয় মাস সবচেয়ে খারাপ প্রভাব পড়তে চলেছে। ভাইরাসের কারণে আরও দুই লক্ষ মানুষের মৃত্যু হতে পারে শুধু আমেরিকায়। ইনস্টিটিউট অফ হেলথ মেট্রিকস নিজেদের রিপোর্টে এমন সম্ভাবনার কথাই উল্লেখ করেছে। গেটস মনে করেন, নতুন প্রেসিডেন্ট বাইডেন একশো দিন মাস্ক বাধ্যতামূলক করে একেবারে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ফাইজার ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। কিন্তু বিশাল দেশে সব মানুষকে টিকা দেওয়া সময় সাপেক্ষ। শিপমেন্ট একটা বড় চ্যালেঞ্জ।

গেটস মনে করেন টিকা এসে গেলেও মাস্ক ব্যবহার করে যাওয়া উচিত। সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা উচিত। তাহলে মৃত্যুর সংখ্যা কিছুটা কম হতে পারে। পাশাপাশি তিনি জানাচ্ছেন, টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে মানুষের অর্থনৈতিক প্রতিপত্তি নয়, দেখা উচিত কার প্রয়োজন কতটা। তবে তিনি যে ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন তাতে অর্থনৈতিক মন্দার কথা উল্লেখ থাকলেও, সারা বিশ্বে আর্থিক চ্যালেঞ্জ এতটা বড় হয়ে দেখা দেবে ভাবতে পারেননি। পাশাপাশি আমেরিকার মত দেশের এই পরিস্থিতি আরও ভালো করে সামলানো উচিত ছিল বলে মন্তব্য করেন তিনি। সে যাই হোক, বিল গেটসের কথা যদি সত্যি হয়,তাহলে আরও দুর্দিন অপেক্ষা করে আছে বিশ্ববাসীর জন্য।

Rohan Roy Chowdhury

Published by: Rohan Chowdhury
First published: December 14, 2020, 6:27 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर