• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • শুরু হল কোচবিহারের বড়দেবীর পুজো, করোনা আবহেও রাজ আমলের নিয়ম রইল অটুট

শুরু হল কোচবিহারের বড়দেবীর পুজো, করোনা আবহেও রাজ আমলের নিয়ম রইল অটুট

কোচবিহারের বড়দেবী

কোচবিহারের বড়দেবী

পুজোতে পায়রা ও মাগুর মাছ বলিরনিয়ম রয়েছে৷ একসময় বড়দেবীর পুজোতে নরবলি হত৷ তবে সেই নিয়ম এখন নেই।

  • Share this:

    #কোচবিহার: করোনা আবহেও রাজআমলের নিয়ম অটুট কোচবিহারে। প্রাচীন প্রথা মেনেই বড়দেবী দুর্গার আরাধনা শুরু হল রাজার শহরে৷ বড়দেবী মন্দিরে বুধবার হল গৃহ পুজো। পুজোতে পায়রা ও মাগুর মাছ বলিরনিয়ম রয়েছে৷ একসময় বড়দেবীর পুজোতে নরবলি হত৷ তবে সেই নিয়ম এখন নেই। তবে দুর্গাপুজোর সময় গুপ্ত পুজোতে নররক্ত লাগে৷ আঙ্গুল থেকে রক্ত দেওয়া হয়। বুধবার গৃহ পুজোর পরে শুরু হবে দেবীর প্রতিমা বানানোর কাজ। মন্দিরে গড়ে উঠবে বড়দেবীর প্রতিমা৷ আগামী রাধা অষ্টমীতে ময়নাকাঠের এই দন্ডটি আসবে এই মন্দিরে৷ এই ময়নাকাঠ প্রতিমার মেরুদন্ড। ময়না কাঠ মন্দিরে এলে তিন দিন খাওয়ানোর পর শুরু হবে প্রতিমা গড়ার কাজ।

    রাজপুরোহিত হীরেন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য বলেন , শুক্লা অষ্টমী তিথিতে ময়নাকাঠের যুগচ্ছেদন পুজো অনুষ্ঠিত হয় প্রথা মেনে। প্রায় একমাস এই শক্তিদন্ডটির পুজো হবে মদনমোহন মন্দিরে। এরপর রাধা অষ্টমী তিথিতে এই দন্ডটি নিয়ে যাওয়া হবে বড়দেবীর মন্দিরে। পুজো শেষে হাওয়া খাওয়ানোর পর শুরু হবে বড়দেবীর প্রতিমা গড়ার কাজ৷ মহারাজাদের অবর্তমানে পুজো পরিচালনার দায়িত্ব সামলায় দেবত্র ট্রাস্ট বোর্ড।

    মহারাজাদের স্বপ্নাদেশে পাওয়া দেবী দূর্গা কোচবিহারে বড়দেবী। প্রায় পাঁচ শতাধিক বছরের বেশি সময়কাল ধরে পূজিত হয়ে আসছেন এই বড়দেবী। ময়নাগাছের ডাল দিয়েই প্রতিমার কাঠামো তৈরী হয়। স্বপ্নে এই পুজো করার আদেশ পেয়েছিলেন মাহারাজ৷ তাই দেবী দুর্গার রুপ একেবারেই আলাদা। বড়দেবীর বাহন সিংহ নয় বাঘ। লক্ষ্মী-স্বরস্বতী-কার্তিক-গণেশকে বড়দেবীর সঙ্গে দেখা যায় না। পরিবর্তে বড়দেবীর সঙ্গে থাকেন জয়া ও বিজয়া।

    রাজ্যের নানা প্রান্ত তো বটেই অসম থেকেও ভক্তরা আসেন বড়দেবীর টানে। এই পুজোর সঙ্গে রাজ আমলের যোগ থাকায় আলাদা আবেগ ভক্তদের মনে। তবে এবছর করোনা পরিস্থিতিতে বড়দেবীর পুজোতে পুরনো সব নিয়ম পালন হবে ঠিকই কিন্তু ভক্তদের ভিড় করার ক্ষেত্রে বিধি লাগু হতে পারে বলে দেবত্র ট্রাস্ট বোর্ড জানিয়েছে।

    Published by:Pooja Basu
    First published: