corona virus btn
corona virus btn
Loading

সামান্য টাকায় বিক্রি করে দিয়েছিল স্বামী, লকডাউনেই ঘরে ফিরল হারিয়ে যাওয়া মেয়ে

সামান্য টাকায় বিক্রি করে দিয়েছিল স্বামী, লকডাউনেই ঘরে ফিরল হারিয়ে যাওয়া মেয়ে
মেয়েটিকে নিয়ে বাড়ি ফিরছেন তাঁর বাবা।

লকডাউনের কারনে চোপড়া থানার পুলিশ যেতে না না পারায় গৃহবধূর বাবা হরিয়ানা থেকে মেয়েকে উদ্ধার করে চোপড়ায় নিয়ে আসেন।

  • Share this:

#কলকাতা: দীর্ঘ চার বছর পেরিয়েছে। লকডাউনের মধ্যেই হারিয়ে যাওয়া মেয়ের খোঁজ পেলেন বাবা। ভিনরাজ্য থেকে ঘরের মেয়ে ঘরে ফিরল।

বছর চারেক আগে উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া থানার কুলহারা গ্রামে বাসিন্দা মহম্মদ আলমের সঙ্গে সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল বিহারের বাসিন্দা মহমুদ খাতুনের।বিয়ের পর তাঁর একটি কন্যাসন্তান জন্ম হয়। এদিকে মহম্মদ.আলম শিলিগুড়ির এক মহিলার সঙ্গে বিবাহভূত সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল।সেই সম্পর্কের কারণে মহমুদা খাতুন বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিতে উদ্যত হয়। শুরু হয় শারীরিক এবং মানসিক অত্যাচার।শারীরিক অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে মহমুদা বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়।

চোপড়ার একটি বাড়িতে পরিচারিকার কাজ শুরু করে।গত ফেব্রুয়ারি মাসে উপার্জিত অর্থ মালিকের কাছ থেকে তুলে বাপের বাড়িতে যাবার উদ্দেশ্যে রওনা হন।রামগঞ্জের কাছে মহম্মদ আলম ও তার পরিবারের লোকেরা সজ্ঞাহীন করে অপহরণ করে বলে অভিযোগ।স্ত্রীকে হরিয়ানাতে মোটা টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দেয় তারা।

মেয়েকে না পেয়ে মহমুদার পরিবার চোপড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।পুলিশ সেই অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামী এবং শ্বশুড়কে গ্রেফতার করে।

এদিকে ওই তরুণী দুষ্কৃতীদের হাত থেকে কোনও রকমে পালিয়ে হরিয়ানার উছালা থানা এসে আশ্র‍য় নেন। পুলিশকে দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ তার পরিবারকে খবর দেয়।পরিবারের পক্ষ চোপড়া থানায় ঘটনাটি জানানো হয়।

লকডাউনের কারনে চোপড়া থানার পুলিশ যেতে না না পারায় গৃহবধূর বাবা হরিয়ানা থেকে মেয়েকে উদ্ধার করে চোপড়ায় নিয়ে আসেন।বিজেপি নেতা শাহিন আক্তার জানিয়েছেন, মহিলার স্বামী-সহ পরিবারের লোকেরাই তাকে মোটা টাকার বিনিময়ে ভিনরাজ্যে বিক্রি করে দিয়েছিল।পুলিশ এই ঘটনায় দুই জন গ্রেফতার করেছে।

Published by: Arka Deb
First published: June 2, 2020, 9:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर