করোনার গ্রাফ ঊর্ধ্বমূখী, একদিনেই আক্রান্ত ৫৩! বর্ধমানে আক্রান্তের সংখ্যা ১,১৬৯

করোনার গ্রাফ ঊর্ধ্বমূখী, একদিনেই আক্রান্ত ৫৩! বর্ধমানে আক্রান্তের সংখ্যা ১,১৬৯
এ দিন পর্যন্ত এই জেলায় ১,১৬৯ জন পুরুষ-মহিলা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তার মধ্যে ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এ দিন পর্যন্ত এই জেলায় ১,১৬৯ জন পুরুষ-মহিলা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তার মধ্যে ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনার সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েই চলেছে। সংক্রমণের গ্রাফ ঊর্ধ্বমূখী হওয়ায় চিন্তিত জেলা প্রশাসন। প্রতিদিনই জেলার প্রায় সব প্রান্ত থেকেই আক্রান্তের হদিশ মিলছে। লালারসের নমুনা পরীক্ষা বাড়ানো হলে আরও বেশি মাত্রায় আক্রান্ত পুরুষ-মহিলার হদিশ মিলবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এরইমধ্যে আজ বৃহস্পতিবার থেকে জেলার বেশ কিছু জায়গায় লকডাউনের পরিকল্পনা নিয়েও তা থেকে আপাতত পিছিয়ে এসেছে জেলা প্রশাসন। পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী আগেই জানিয়েছিলেন, বর্ধমান শহরসহ বেশ কিছু এলাকায় বৃহস্পতিবার থেকে টানা লকডাউন হবে। এ দিন তিনি জানান, আপাতত লকডাউন না হলেও আগামী সপ্তাহে ফের সে পথে হাঁটতে হতে পারে।


পূর্ব বর্ধমান জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দু’দিন আগেই হাজার ছাড়িয়েছিল। গত ২৪  ঘণ্টায় এই জেলায় নতুন করে ৫৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এ দিন পর্যন্ত এই জেলায় ১,১৬৯ জন পুরুষ-মহিলা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ৮১২ জন ইতিমধ্যেই চিকিৎসার পর  সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বর্তমানে ৩৩০ জন করোনা হাসপাতাল, সেফ হাউস, সেফ হোমে  চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ দিন পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, অনেকেই করোনার উপসর্গ নিয়ে লালারসের নমুনা পরীক্ষার জন্য জমা দিচ্ছেন। আবার অনেকের অ্যান্টিজেন টেস্ট হচ্ছে। আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসা পুরুষ-মহিলাদের হোম আইসোলেশনে রেখে পরীক্ষা করানোর কাজ চলছে।

নতুন করে আক্রান্ত ৫৩ জনের মধ্যে ১৪ জন শহর এলাকার বাসিন্দা। তার মধ্যে বর্ধমান শহরে ৮ জন করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। দাঁইহাট শহরে একজন করোনা পজিটিভ হয়েছেন। কালনা শহরেও নতুন করে একজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কাটোয়া শহরে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দু’জন। মেমারি শহরেও দু’জনের দেহে করোনার সংক্রমণ মিলেছে।

এ ছাড়া কাটোয়া দু'নম্বর ব্লকে ছ’জন আক্রান্ত হয়েছেন। রায়না দু'নম্বর ব্লকে ফের সাতজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। ভাতার ব্লক ও কেতুগ্রাম দু’নম্বর ব্লকে চারজন করে করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। কেতুগ্রাম এক নম্বর ব্লক, মেমারি এক নম্বর ব্লক, মেমারি দু'নম্বর ব্লক ও খণ্ডঘোষ ব্লকে তিনজন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কালনা দু'নম্বর ব্লকে দু’জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এ ছাড়া জামালপুর, কালনা এক নম্বর ব্লক, মন্তেশ্বর ও পূর্বস্থলী দু'নম্বর ব্লকে একজন করে করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে।

Published by:Simli Raha
First published:

লেটেস্ট খবর