হোম /খবর /দক্ষিণবঙ্গ /
করোনা আক্রান্ত স্বামীর মৃতদেহ আগলে ১৬ ঘণ্টা কাটালেন স্ত্রী, স্তম্ভিত হাওড়া...

করোনা আক্রান্ত স্বামীর মৃতদেহ আগলে ১৬ ঘণ্টা কাটালেন স্ত্রী, স্তম্ভিত হাওড়া...

অবশেষে সৎকারের জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে করোনা আক্রান্তের মৃতদেহ।

অবশেষে সৎকারের জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে করোনা আক্রান্তের মৃতদেহ।

জেলা প্রশাসনের তরফে মৃতের স্ত্রীকে গৃহ পর্যবেক্ষণে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে

  • Share this:

#হাওড়া: করোনা আক্রান্ত স্বামীর মৃতদেহ আগলে ১৬ ঘন্টা বসে রইলেন স্ত্রী।  ঘটনাস্থল হাওড়া পুরসভার ২৫ ওয়ার্ডের হালদারপাড়া।

বছর ৬৫-এর ওই বৃদ্ধ দীর্ঘদিন ধরেই কিডনির জটিল রোগে আক্রান্ত ছিলেন। সম্প্রতি তাঁর একটি ছোট অস্ত্রোপচার ছিল, অস্ত্রোপচারের আগে  পরামর্শে তার করোনা পরীক্ষা করা হয়, করোনা টেস্টে তাঁর শরীরে করোনার সংক্রমণ ধরা পরে। তবে তার কোনও রকম করোনা উপসর্গ না থাকায় চিকিৎসকের পরামর্শে বাড়িতেই রাখা হয়। ১৪ দিন গৃহ পর্যবেক্ষণে থাকাকালীন সাত দিনের মাথায় শুক্রবার রাত এগারোটার সময় তাঁর মৃত্যু হয় | সেসময় বাড়িতে ছিলেন মৃতের স্ত্রী|‌

মৃত্যুর খবর জানিয়ে বিভিন্ন জনকে খবর দিলেও কোনো সাহায্য না পাওয়ার অভিযোগ ওঠে| এমনকী পুলিশের দ্বারস্থ হয়েও মেলেনি কোনও সাহায্য| রাত পেরিয়ে সকাল হলেও মৃতদেহ আগলে ঠাঁই বসে থাকেন ওই মহিলা|

করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই এলাকা কার্যত লকডাউনে পরিণত হতে থাকে। দীর্ঘ টালবাহানার পর প্রতিবেশী এক ব্যক্তির মাধ্যমে খবর পৌঁছায় রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ রায়ের কাছে, অরূপ বাবুর চেষ্টাই প্রায় ষোলো ঘন্টা পর অবশেষে দেহ নিয়ে যায় জেলা স্বাস্থ্য দফতরের কর্মীরা| দেহ সৎকারের জন্য নিয়ে যাওয়া হয় শিবপুর শ্মশান ঘাটে|

জেলা প্রশাসনের তরফে মৃতের স্ত্রীকে গৃহ পর্যবেক্ষণে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে | করোনা আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসনের বিরুদ্ধে এই ধরনের  গড়িমসির অভিযোগ এই প্রথম নয়, এর আগেও বালিতে করোনা আক্রান্ত রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি না নিয়ে বাড়ি চলে যাওয়ার অভিযোগ ওঠে সত্যবালা আই ডি হাসপাতালের বিরুদ্ধে |

Published by:Arka Deb
First published:

Tags: Coronavirus, COVID-19