করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনায় মৃত স্বামী, দুই সন্তানকে নিয়ে চলন্ত ট্রেনের সামনে ঝাঁপ শোকস্তব্ধ স্ত্রীর

করোনায় মৃত স্বামী, দুই সন্তানকে নিয়ে চলন্ত ট্রেনের সামনে ঝাঁপ শোকস্তব্ধ স্ত্রীর

খোঁজ নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় স্বয়ং৷ খোঁজ নেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। চিকিৎসায় যাতে কোনও ত্রুটি বা গাফিলতি না হয় নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: স্বামী মারা গিয়েছেন করোনায় সংক্রমিত হয়ে। খবরটা কানে পৌঁছতে কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। শোকবিহ্বল হয়ে পড়েন। পাশে তখন দুই শিশু কন্যা। একজনের বয়স ২, অন্যজনের ৪৷ কী করবেন? দিশেহারা হয়ে পড়েন স্ত্রী। বাড়িতে তখন পুলিশের ভ্যান এসেছে সবে।

সরকারি নিয়ম মতো পরিবারের পাঁচ জন দেখতে যেতে পারবেন মৃতদেহ। তিনি যাননি৷ আত্মীয়ের বাড়ি যাচ্ছি বলে আচমকা দুই দুধের শিশুকে নিয়ে বেড়িয়ে পড়েন। টোটোতে চেপে সোজা এনজেপি স্টেশন।

করোনায় মৃত শিলিগুড়ির ৪৫ নং ওয়ার্ডের চম্পাসারির বাসিন্দা সঞ্জীব মাহাতোর স্ত্রী। সঞ্জীববাবু পেশায় ছিলেন শিক্ষক। খড়িবাড়ি সার্কেলের রামজনম প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। কিছুতেই স্বামীর মৃত্যু মেনে নিতে পারছিলেন না তাঁর স্ত্রী সীমাদেবী। ভেঙে পড়েন। স্টেশনে গিয়ে দীর্ঘক্ষণ দুই শিশু কন্যাকে নিয়ে বসেছিলেন। তারপর আগরতলা থেকে দিল্লিগামী ডাউন স্পেশাল রাজধানী ট্রেন এনজেপি স্টেশনে পৌঁছতেই সোজা ঝাঁপ৷ দুই শিশু কন্যাকে নিয়ে চলন্ত ট্রেনের সামনে। আত্মহত্যার চেষ্টা৷ স্বামীর মৃত্যুর শোক মেনে নিতে পারছিলেন না। ট্রেনের গতি কম থাকায় বেঁচে যান।

তিন নম্বর প্ল্যাটফর্মে তখন আরপিএফ, জিআরপি সহ যাত্রী এবং হকাররা। কেউ কিছু বোঝার আগেই ঝাঁপ। তারপর উদ্ধার করে পাঠানো হয় মাটিগাড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে। একাধিক জায়গায় চোট। গুরুতর জখম মা ও দুই শিশু কন্যাকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর পাঠানো হয় উত্তরবঙ্গ মেডিকেলে। সেখানেই এখন তাঁদের চিকিৎসা চলছে। খোঁজ নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় স্বয়ং৷ খোঁজ নেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। চিকিৎসায় যাতে কোনও ত্রুটি বা গাফিলতি না হয় নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

এদিকে মৃত শিক্ষকের আত্মীয়রা শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালের বিরুদ্ধে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলেছেন। তাদের অভিযোগ, অন্য উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হলেও করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এমনকী অন্যত্র চিকিৎসার জন্যে ছুটি দেওয়ার আবেদন করলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দেয়নি বলে অভিযোগ। যাবতীয় অভিযোগ খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন করোনার উত্তরবঙ্গের ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য কর্তা সুশান্ত রায়।'

PARTHA PRATIM SARKAR

Published by: Arindam Gupta
First published: July 7, 2020, 9:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर